ghatail.com
ঢাকা শনিবার, ৩০ আশ্বিন, ১৪২৮ / ১৬ অক্টোবর, ২০২১
ghatail.com
yummys

সদস্য নন, তবুও সখীপুর ইমাম সমিতি থেকে বহিষ্কার


ghatail.com
স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম
২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ / ১০৯ বার পঠিত
সদস্য নন, তবুও সখীপুর ইমাম সমিতি থেকে বহিষ্কার

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ইমাম সমিতির সদস্য না হলেও সমিতি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে এক ইমামকে। হঠাৎ বহিষ্কারের নোটিশ পেয়ে অবাক তিনি। গত ২ সেপ্টেম্বর উপজেলা ইমাম সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত এক লিখিত নোটিশের মাধ্যমে বাসারচালা বাজার দারুস সালাম জামে মসজিদের পেশ ইমাম আনিছুর রহমানকে ইমাম সমিতি থেকে বহিষ্কার করা হয়।

অথচ ওই ইমাম কখনো ইমাম সমিতির সদস্য ছিলেন না বলে দাবি তাঁর।

এ বিষয়ে ইমাম সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবদুল লতিফ মিয়া বলেন, ‘দেশের অভ্যন্তরে জন্ম নিলেই যেমন দেশের নাগরিক তেমনি কোনো ইমাম উপজেলার সীমানার ভেতরে ইমামতি করলেই তিনি ইমামদের সংগঠনটির সদস্য হন।’

তবে স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টিকে হাস্যকর বলছেন। এমন সয়ংক্রিয় প্রক্রিয়ায় সদস্য করা ও অব্যাহতির ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। গত শুক্রবার উপজেলার বাসারচালা বাজার দারুসসালাম জামে মসজিদের সামনে স্থানীয় মুসল্লিরা এ প্রতিবাদ জানান।

এ সময় মসজিদ কমিটির সভাপতি আবদুল কদ্দুস মিয়ার সভাপতিত্বে সাড়াশিয়া বাসারচালা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল কদ্দুস শাওন, সাবেক ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আলহাজ জালাল উদ্দিন, মসজিদের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রাজ্জাক বক্তব্য দেন।

গতকাল রোববার দুপুরে স্থানীয় সাড়াশিয়া বাসারচালা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল কদ্দুস শাওন মোবাইল ফোনে বলেন, ‘মূলত ওই সমাজের দুটি পক্ষের মধ্যে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে। সমাজের ১২৬টি পরিবারের মধ্যে ১১৩টি পরিবার ইমামের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। এরই মধ্যে ইমাম সমিতির সিদ্ধান্তটি হাস্যকর মনে হয়েছে। তাঁদের সংগঠনের সদস্য না হওয়া সত্ত্বেও ইমামের বিরুদ্ধে বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দিয়েছে, এটা ঠিক মনে হয়নি।’

ইমাম হাফেজ মাওলানা আনিছুর রহমান বলেন, ‘১৩ বছর ধরে আমি ওই মসজিদের ইমামতি করছি। জানতে পারলাম আমি নাকি ইমাম সমিতির সদস্য পদ থেকে বহিষ্কার হয়েছি। প্রকৃতপক্ষে আমি ইমাম সমিতিতে কখনো যোগ দেইনি এবং আমাকে কখনো যোগ দিতে বলাও হয়নি। অযথা আমার নামে উপজেলাজুড়ে বদনাম ছড়ানো হয়েছে আমি নাকি বহিষ্কৃত ইমাম। এ নিয়ে কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টালেও সংবাদ ছাপা হয়েছে। আমি এর প্রতিবাদ জানাই।’

ইমাম সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মো. আবদুল লতিফ মিয়া বলেন, সখীপুরে যেকোনো মসজিদে ইমামতি করলেই তিনি সমিতির সদস্য হন। ওই সমাজের বিষয়টি মীমাংসা করতে তাঁকে নোটিশ করা হয়েছে, কিন্তু তিনি আসেননি বলে তাঁকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।’

(স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম)/-