টাঙ্গাইলে প্রেমিকার বাড়ীতে গিয়ে নিখোঁজ যুবকের লাশ নদীতে

টাঙ্গাইলে নিখোঁজের ছয়দিন পর লৌহজং নদ থেকে আব্দুল্লাহ আল মামুন আশিক (১৮) নামে এক কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৫ মে) বিকেলে ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আশিক শহরের কাগমারা এলাকার বাসিন্দা। তার বাবার নাম রাশেদুল ইসলাম। সে শহরের মেজর জেনারেল মাহমুদুল হাসান আদর্শ কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল। আশিকের বাবা রাশেদুল ইসলাম পুলিশের ঢাকা রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে কর্মরত।

নিহতের বাবা রাশেদুল ইসলাম জানান, কয়েক মাস আগে থেকে প্রতিবেশী এক মেয়ের সঙ্গে তার ছেলের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আশিক ওই মেয়েকে একটি মোবাইল ফোন উপহার দেয়। মেয়ের বড় ভাই বিষয়টি জানার পর আশিককে মোবাইল ফোন ফেরত নিতে তাদের বাসায় ডাকেন। আশিক ৩০ এপ্রিল রাতে ওই মেয়ের বাসায় মোবাইল ফোন আনতে যায়। এরপর আর বাড়ি ফিরে আসেনি।

টাঙ্গাইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন জানান, নিখোঁজ আশিকের মরদেহ বাড়ির পাশে লৌহজং নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-

ধনবাড়ীতে বিএনপি নেতা সরকার শহীদের খাদ্য সহায়তা

বিএন পি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের আহবানে ধনবাড়ীতে বি এন পির এাণ সাগ্রী বিতরন করেন সরকার শহিদ

টাংগাইলে ধনবাড়ীতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ঘরে থাকার নির্দেশনায় বিপাকে পড়েছেন উপজেলার নিম্ম-মধ্যবিত্তরা। কর্মহীনতায় উপার্জন বন্ধ থাকায় তাদের অনেকেই ঘরেই খাবার সংকট রয়েছে। এমনই পরিস্থিতিতে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের আহব্বানে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী সরকার শহীদ।

অতিদরিদ্র অসহায় পরিবারগুলোর খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আজ মঙ্গলবার (৫ মে) থেকে থেকে ধনবাড়ী উপজেলার কর্মহীন পরিবারের মধ্যে খাবর পৌছে দেয়ার মাধ্যমে শুরু হলো সরকার শহীদের মানবতার সেবার কর্মসুচি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ধনবাড়ী পৌর বিএনপির আহব্বায়ক এস এম ছোবহান, সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক হাফেজ খাইরুল ইসলাম সহ সংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ।

সরকার শহীদ সে সময় ঘাটাইল ডট কমকে জানান, ক‌রোনাভাইরাসের প্রকোপ থে‌কে মুক্ত থাক‌তে সরকার ঘো‌ষিত আ‌দে‌শে ঘ‌রে থাকা এসব নিম্ন আ‌য়ের প‌রিবার প‌ড়ে‌ছে বিপা‌কে। দৈ‌নিক মুজু‌রির এসব মানুষগু‌লোর আয় বন্ধ হওয়ায় তারা অনেক কষ্টে দিন যাপন কর‌ছেন। তাই আমি আমার রাজনৈতিক দল বিএনপির পক্ষ থেকে তাদের খাদ্য সহায়তা দিয়ে সহযোগিতা করছি।

জানা যায়, পাচঁ শতাধিক প‌রিবা‌রের মা‌ঝে চাল, ডাল, আলু, তৈল, খাদ‌্য বিতরণ করেন বিএনপির এই নেতা।

হাফেজ খাইরুল ইসলাম জানান, এই দূ‌র্যোগ আমা‌দের স‌ম্মি‌লিতভা‌বে প্রতি‌রোধ করেতে হ‌বে। সমা‌জের বিত্তবান মানুষগু‌লো য‌দি অসহায়‌দের পা‌শে দাড়ায় ত‌বে এই সমস্যা দূরীভূত করা সম্ভব। আমা‌দের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা আমি আমা‌দের সাধ‌্যমত সহ‌যোগীতা কর‌ছি। আপনারাও আপনার পা‌শে বসবাস করা মানুষগু‌লোকে সহ‌যোগীতা করুন।

পরে তিনি ক‌রোনা থে‌কে মুক্ত থাক‌তে সবাইকে তাদের নিজ গৃহে অবস্থান করতে অনুরোধ জানান।

(জহিরুল ইসলাম মিলন, ঘাটাইল ডট কম)/-

ভুঞাপুরে সাংবাদিকের ধান কেটে দিলো সাংবাদিকরা

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে শ্রমিক ও অর্থ সংকটে পাকা ধান কাটতে না পেরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন স্থানীয় এক সাংবাদিক। পরে সেই স্ট্যাটাসে সাড়া দিয়ে আজ সকালে প্রায় দেড় বিঘা জমির ধান কেটে দিয়েছেন ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সদস্যগণ।

উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কয়েড়া পূর্বপাড়া গ্রামের ওই সাংবাদিকের ৪৫ শতাংশ জমির ধান কেটে দেন সাংবাদিকরা।

এতে অংশগ্রহণ করেন, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহআলম প্রামানিক, সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম কিসলু, সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান, সাবেক সম্পাদক আখতার হোসেন খান, সাংবাদিক আসাদুল খান, তৌফিকুর রহমান, নাসির উদ্দিন, আশিকুর রহমানসহ অন্যরা।

এবিষয়ে স্থানীয় সংবাদিক ফরমান শেখ বলেন, জমিতে ব্রি-২৮ ধান ধান পেকে গেলেও শ্রমিক সংকট ও অর্থাভাবে ঘরে তুলতে পারছিলামনা। এজন্য ২ মে রাতে একটি ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেই। এতে অন্যরা সারা না দিলেও আজ মঙ্গলবার ভোরে সকাল থেকে সাংবাদিকরা তাদের ধান কেটে দেন।

ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহআলম প্রামানিক বলেন, সাংবাদিকতার পাশাপাশি সামাজিক কাজও করি আমরা। যেহেতু আমাদের সহকর্মী ফেসবুকে পোস্ট দিয়েও ধান কাটার জন্য সহযোগিতা পাচ্ছিলেননা তাই তাদের দুঃসময়ে ধান কেটে দিয়েছি। অন্য সহকর্মীরা চাইলেও তাদের একইভাবে সহযোগিতা করা হবে।

(ভুঞাপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-

ঘাটাইলে কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির নেতার সহস্রাধিক মানুষকে খাদ্য সহায়তা

[et_pb_section admin_label=”section”]
[et_pb_row admin_label=”row”]
[et_pb_column type=”4_4″][et_pb_text admin_label=”Text”]টাংগাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন (বিদ্যুৎ) সহস্রাধিক কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান করেছেন।

আজ মঙ্গলবার (৫ মে) উপজেলার দিগলকান্দি ইউনিয়নের পারসী, জোৎনাসর, কাগমারী বৈলতৈল গ্রামে তিনি কর্মহীন মানুষের মাঝে এই খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন।

এর আগে তিনি একই ইউনিয়নের বাগুনডালী, মাইজবাড়ী গ্রামে অসহায় দরিদ্র মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন।

করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে স্থানীয় সেচ্ছাসেবী সংস্থার সেচ্ছাসেবীর সাথে নিয়ে গ্রামে ঘুরে ঘুরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি।

তার খাদ্য সহায়তার প্যাকেজে প্রতি জনের জন্য ছিল ৫ কেজি, চাল ১ কেজি ডাল ১ কেজি আলু ও সাবান।

স্থানীয় সেচ্ছাসেবী মো: নাজমুল ইসলাম বলেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন বিদ্যুৎ এর মহানুভবতা সমাজে দৃষ্টান্ত ও অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে। তিনি প্রমাণ করেছেন জনদরদী হতে হলে জনপ্রতিনিধি হতে হয় না, মানুষকে ভালবাসতে হলে মন হলেই চলে।

এ ব্যাপারে আব্দুল্লাহ আল মামুন বিদ্যুৎ জানান, করোনা মহামারীতে কর্মহীন হত দরিদ্র মানুষের কথা চিন্তা করে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এ ত্রান কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

বিদ্যুৎ মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদের সন্তান এবং তৃণমূল আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ কর্মী।

(মাজহারুল ইসলাম শিহাব, ঘাটাইল ডট কম)/-[/et_pb_text][/et_pb_column]
[/et_pb_row]
[/et_pb_section]

টাঙ্গাইলে নতুন ৫ জন সহ জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত ৩২

টাঙ্গাইলে উপসর্গ ছাড়াই নতুন করে স্বামী-স্ত্রীসহ আরো ৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে দেলদুয়ার উপজেলায় ৩ জন এবং মির্জাপুর উপজেলায় ২ জন রয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট ৩২ জনের দেহে করোনার ভাইরাসে শনাক্ত হলো।

আজ মঙ্গলবার (৫ মে) দুপুরে টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মো. ওয়াহিদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার জেলা থেকে মোট ৫৩ টি নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে ঢাকা থেকে ৫ জনের আক্রান্তের বিষয়টি জানানো হয়। একদিনের সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা এটি।

দেলদুয়ার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মিনহাজ উদ্দিন বলেন, উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নের চালাটিয়া গ্রামের স্বামী-স্ত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়। তাদের কোন উপসর্গ ছিল না। তবে ওই ব্যক্তি  ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন। তিনি গত কয়েকদিন আগে সাভারের একটি ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য গিয়েছিলেন। সেখান থেকেই তিনি আক্রান্ত হন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অপরদিকে উপজেলার পাথরাইল ইউনিয়নের টিনাখোলা এলাকার আরেক ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হন। তিনি মুন্সিগঞ্জ জেলায় একটি এনজিওতে কাজ করতেন। বিগত কয়েকদিন আগে তিনি গ্রামের বাড়িতে আসলে পরে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তবে তারও কোন উপসর্গ ছিল না। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এই প্রথম দেলদুয়ার উপজেলায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হলো।

অপরদিকে মির্জাপুর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাসদুসা খানম বলেন, আক্রান্ত দুইজনের একজন উপজেলার মহেড়া ইউনিয়নের স্বল্প মহেড়া গ্রামের একজন স্বাস্থ্যকর্মী। সে একটি কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি’র দায়িত্বে রয়েছেন।

অপরজন আজগানা ইউনিয়নের তেলিনা গ্রামের ৪২ বছরের এক দিনমজুর বলে জানা গেছে। তিনি ঢাকা যাওয়ার কারণে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তাদের দ্ইুজনেরই করোনার তেমন কোন লক্ষণ ছিল না।

এ নিয়ে এ উপজেলার ৫ জন করোনা পজিটিভ হলেন। তাদের মধ্যে এক নারী ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-

ঢামেক করোনা ইউনিটে ৪ দিনে ৩০ জনের মৃত্যু

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে স্থাপিত করোনা ইউনিটে ভর্তি শুরুর চার দিনেই ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে চার জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছিল। বাকিরা করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন।

আজ মঙ্গলবার (৫ মে) ইউনিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত ওয়ার্ড মাস্টার মোহাম্মদ রিয়াজ তথ্য জানিয়েছেন।

রিয়াজ জানান, গত শনিবার (২রা মে) থেকে ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নতুন কোভিড-১৯ ইউনিটে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত এই ইউনিটে ভর্তি হওয়া ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষায় চারজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল। বাকিদের মধ্যে করোনা উপসর্গ ছিল।

জানা যায়, গত ২রা মে একজন, ৩রা মে ১২ জন ও ৫ই মে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা মেডিকেলের এই করোনা ইউনিটে। সব মিলিয়ে প্রথম ৪ দিনে মোট ৩০ জন মারা গেলেন।

মোহাম্মদ রিয়াজ বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ২৬টি মরদেহ দাফনের জন্য মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, এই চার দিনে এই ইউনিটে মোট ৩০২ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ৫৫ জন করোনা ভাইরাস পজেটিভ। এদের মধ্যে সাত জনের শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

(মানবজমিন, ঘাটাইল ডট কম)/-

সখীপুরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলারকে জরিমানা, ইউপি সদস্য গ্রেফতার

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় ১০ টাকা কেজি মূল্যের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চালের উপকারভোগী ক্রেতার সঙ্গে প্রতারণার দায়ে যাদবপুর ইউনিয়নের ঘেচুয়া বাজার বিক্রয় কেন্দ্রের ডিলার সোহরাব মিয়াকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার (৪ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজা তাকে এ জরিমানা করেন।

অন্যদিকে, একই অপরাধে জড়িত থাকায় যাদবপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মিনহাজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত ইউপি সদস্য মিনহাজ থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন।

আদালত সূত্রে, শোলা প্রতিমা গ্রামের কালু মিয়া ২০১৬ সালে খাদ্যবান্ধবের উপকারভোগী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। খাদ্যবান্ধবের নতুন তালিকা প্রস্তুতকালে গত রোববার (৩ মে) কালুকে ২০১৬ তালিকাভুক্ত হওয়া কার্ড ইউপি সদস্য মিনহাজ তার বাড়ি পৌঁছে দেন। আজ সোমবার প্রতারিত হওয়া ওই ব্যক্তি ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজা সময়ের কন্ঠস্বর’কে জানান, ওই ডিলার খাদ্যবান্ধব উপকারভোগী কালু মিয়ার সঙ্গে প্রতারণা করে পাঁচ বছর ধরে বেশি দামে অন্য ব্যক্তির কাছে চাল বিক্রি করে আসছিল। প্রতারণার সত্যতা পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ডিলারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ দিকে ইউপি সদস্য মিনহাজ উদ্দিনের বিষয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আশরাফুল আলম ফাহিম জানান, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির দায়িত্বপ্রাপ্ত খাদ্য পরিদর্শক শামীম আল ফারুক বাদী হয়ে ইউপি সদস্য মিনহাজ উদ্দিনের নামে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

(সখীপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-