২ এপ্রিল শুরু হওয়া এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থী ১৩ লাখ ১১ হাজার

আগামী ২ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া সারাদেশের উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছে। এর মধ্যে ছেলেদের সংখ্যা ৬ লাখ ৯২ হাজার ৭৩০ জন এবং মেয়েদের সংখ্যা ৬ লাখ ১৮ হাজার ৭২৭ জন।

আজ বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আসন্ন ও সমামানের পরীক্ষার সার্বিক দিক তুলে ধরার লক্ষ্যে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবছর মোট কেন্দ্র ২ হাজার ৫৪১টি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৮ হাজার ৯৪৩ টি। ২ এপ্রিল শুরু পরীক্ষা শুরু হয়ে চলবে ১৩ মে পর্যন্ত। এছাড়া বিদেশি ৭টি কেন্দ্রে এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা মোট ২৯৯ জন। ২০১৭ সালের তুলনায় এবছর ১ লাখ ২৭ হাজার ৭৭১ জন পরীক্ষার্থী বৃদ্ধি পেয়েছে। বৃদ্ধি হার ১০ দশমিক ৭৯ শতাংশ।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, এবার পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে কেন্দ্রীয়ভাবে লটারির মাধ্যমে প্রশ্ন সেট নির্ধারণ করে সকল বোর্ডে অভিন্ন প্রশ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি কেন্দ্রেএকাধিক প্রশ্নের সেট পৌঁছে দেয়া হবে। কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধের নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হওয়া না হওয়া পর্যন্ত এ নির্দেশনা বহাল থাকবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিষয়টি তদারকি করবেন।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, কেন্দ্র সচিব ছাড়া অন্য কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইলসহ কোনো ধরণের ডিভাইস সঙ্গে নিতে পারবে না। যদি কারো কাছে এ ধরণের ডিভাইস পাওয়া যায় তবে তাৎক্ষণিকভাবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে প্রশ্নে প্যাকেটে সিলগালাসহ সিকিউরিটি কোডের মাধ্যমে ডাবল প্যাকেটের মাধ্যমে কেন্দ্রে প্রশ্ন পাঠানো হবে। সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসাইন উপস্থিত ছিলেন।

(বাসস, ঘাটাইল.কম)/-