‘সেকেন্ড হ্যান্ড রেলইঞ্জিন’ উপহার দিয়েছে ভারত!

ভারত সরকারের ঈদ উপহার হিসেবে দেয়া ১০টি ব্রডগেজ রেলইঞ্জিন পার্বতীপুরে এসে পৌঁছেছে। এসব রেল ইঞ্জিন ৫ থেকে ৭ বছর ধরে ভারতীয় রেলরুটে ব্যবহৃত হয়ে আসছিল।

বুধবার জ্বালানি তেলবাহী লরীর সাথে যুক্ত হয়ে এসব ইঞ্জিন পার্বতীপুর রেল স্টেশনে এসে পৌঁছালে রেলওয়ের কেন্দ্রীয় লোকোমোটিভ কারখানা (কেলোকা) পার্বতীপুরের প্রধান নির্বাহী (সিইএক্স) নুর মোহাম্মদ এগুলো গ্রহণ করেন।

সুত্র জানায়, ১০টি লোকোমোটিভের মধ্যে ৮টি ২০১৩ সাল, ১টি ২০১৪ সাল ও ১টি ২০১৫ সালের মডেলের। ইঞ্জিনগুলোর ভারতীয় সিরিজ নম্বর ডাব্লিই ডি এম থ্রি ডি টাইপের লোকো নম্বর- ই সি আর ১১৪৩১, ১১৪৩২, ১১৪৩৩, ১১৪৩৪, ১১৪৩৫, ১১৫৮৭, ইকোর ১১৪৩৬, ১১৪৩৭, ইআর ১১৪০৬ ও ১১৫৭১। এসব ইঞ্জিন ভারতে রেলের বিভিন্ন রুটে ৭, ৬ ও ৫ বছর ধরে ব্যবহার হয়ে আসছিল।

কেলোকার প্রধান নির্বাহী নুর মোহাম্মদ জানান, ইঞ্জিনগুলো সেকেন্ড হ্যান্ড। কেলোকায় প্রতিটি ইঞ্জিনের পৃথকভাবে যন্ত্রাংশ পরীক্ষা শেষে ট্রায়ালে পাঠানো হবে। এর আগে নতুন করে বাংলাদেশ রেলওয়ের আদলে রঙ পরিবর্তন ও সিরিজ লেখা হবে। পরে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্রডগেজ সেকশনের বিভিন্ন রুটে এসব ইঞ্জিন চলাচল করবে।

উল্লেখ্য, দুই দেশের রেলমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র মন্ত্রীর মধ্যে ভিডিও কন্ফারেন্সের মাধ্যমে এসব ইঞ্জিন হস্তান্তর কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। গত সোমবার ভারতের গেঁদে রেল স্টেশন থেকে বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গার দর্শনা জয়নগর চেকপোষ্ট দিয়ে ইঞ্জিনগুলো বাংলাদেশে প্রবেশ করে।

(ভোরের কাগজ, ঘাটাইল ডট কম)/-