সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে টাঙ্গাইলে গৃহবধূর আত্মহত্যা

টাঙ্গাইলে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে শান্তা বেগম (২৮) নামে এক গৃহবধূ গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

তিনি শহরের পশ্চিম আকুর টাকুর পাড়ার ভাড়াটিয়া আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

বৃহস্পতিবার(২৩ জুলাই) সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের স্বামী আলমগীর হোসেন জানান, প্রায় এক বছর আগে পৌর এলাকার জনৈক ছবুর মিয়ার ছেলে মো. সোনা মিয়ার কাছ থেকে শতকরা ১০ টাকা হারে মাসিক সুদে ৪০ হাজার টাকা ঋণ(ধার) নেন।

নিয়মিত সুদের টাকা পরিশোধ করলেও করোনার কারণে গত ৪ মাস ধরে সুদের টাকা দিতে পারছিলেন না।

তিনি জানান, ইতোপূর্বে বেশ কয়েকবার সোনা মিয়া তাকে সুদের টাকার জন্য চাপ দেয়।

বুধবার (২২ জুলাই) মো. সোনা মিয়ার স্ত্রী বাসায় শান্তা বেগমকে টাকার জন্য গালিগালাজ করেন ও বৃহস্পতিবারের মধ্যে সুদের টাকা পরিশোধের জন্য চাপ দেন।

সুদের টাকা দিতে না পারা ও অপমান সহ্য করতে না পেরে শান্তা বেগম ঘরের ধর্ণার(আড়া) সাথে ঝুঁলে আত্মহত্যা করেন।

এ ঘটনায় টাঙ্গাইল সিআইডি’র টীম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

টাঙ্গাইল সিআইডি’র এসআই প্রীতেশ তালুকদার জানান, লাশ উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। তবে, স্বজনরা আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ তুলছেন।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-