শ্রমিকদের নিয়ে চট্টগ্রামে গার্মেন্টস ব্যবসায়ী কন্যার গায়েহলুদ

চট্টগ্রামে এক ভিন্নধর্মী গায়েহলুদ অনুষ্ঠান নজর কেড়েছে সবার। সাধারণত গায়েহলুদ অনুষ্ঠানে পাত্র-পাত্রীর আত্মীয়-স্বজনরাই আমন্ত্রিত হয়ে থাকেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) রাতে অনুষ্ঠিত এ গায়েহলুদ অনুষ্ঠানে আত্মীয়-স্বজনের পাশাপাশি আমন্ত্রিত হয়েছেন কনের বাবার পোশাক কারখানার শ্রমিকরাও।

চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ শিল্প এলাকার ইন্ডিপেন্ডেন্ট গার্মেন্টসের মালিক এসএম আবু তৈয়ব নিজের একমাত্র কন্যার গায়েহলুদ অনুষ্ঠান করেছেন গার্মেন্টসের দেড় হাজার শ্রমিকের সঙ্গে। কারখানার ছাদের ওপর মঞ্চ করে আয়োজন করা হয় মালিক কন্যার এ গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। যেখানে ছিল না মালিক-শ্রমিকের কোনো দূরত্ব। আনন্দ-উল্লাসে সবাই হয়ে পড়েছিলেন একাকার।

কারখানার সব নারী শ্রমিককেই তিনি (আবু তৈয়ব) দিয়েছেন হলুদ শাড়ি। একই শাড়ি তিনি নিজের স্ত্রী ও স্বজনদের জন্যও কিনেছেন। ছেলেসহ নিজে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে যে পাঞ্জাবি পরেছেন ঠিক একই পাঞ্জাবি দিয়েছেন গার্মেন্টসের পুরুষ শ্রমিক ও কর্মকর্তাদের।

শুধু পোশাকে নয়, খাবারেও ছিল আভিজাত্য। মোরগ পোলাও, ডিম কারি, বোরহানি, জর্দা বাদ যায়নি কিছুই। এসএম আবু তৈয়ব চট্টগ্রাম চেম্বারের পরিচালক এবং বিজিএমইএর সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি।

ব্যবসায়ী আবু তৈয়ব ও উলফাতুন্নেছা পুতুল দম্পতির একমাত্র কন্যা সাইকা তাফাননুম প্রীতির গায়েহলুদে বিভিন্ন গান ও নাচে মাতিয়ে তুলেছিলেন পোশাক শ্রমিকরা।

ব্যবসায়ী আবু তৈয়ব বলেন, আমি মনে করি শ্রমিকরাও আমার পরিবারের অংশ। আমার ইচ্ছে ছিল মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে সব শ্রমিককে নিয়ে কিছু একটা করব। তাই গায়েহলুদ অনুষ্ঠানটিই বেছে নিয়েছি। গায়েহলুদ অনুষ্ঠান বলতে গেলে শ্রমিকরাই পরিচালনা করেছেন।

(যুগান্তর, ঘাটাইলডটকম)/-