শব্দের উচ্চারণ না পারায় শিক্ষকের বেত্রাঘাতে ছাত্র মধুপুর হাসপাতালে

টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভার আকাশী শেওড়াতলা এলাকার ‘উলূমে দ্বীনিয়াহ্ মাদ্রাসা’য় শ্রেণি শিক্ষকের বেধড়ক বেত্রাঘাতে রিফাত হোসাঈন নামে এক ছাত্র আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার (০২ এপ্রিল) শব্দের উচ্চারণ সঠিকভাবে করতে না পারায় রিফাতকে বেধড়ক প্রহার করেন হেফজ বিভাগের শিক্ষক ফজলুর রহমান। এতে রিফাত অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনো সময় অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এলাকার শিক্ষক হারুন অর রশিদসহ অনেকেই বলেন, ওই শিক্ষক এর আগেও বহুবার ছাত্রদের মারপিট করেছেন। এসব ঘটনায় তার বিরুদ্ধে এলাকায় কয়েক দফায় সালিশও হয়েছে। এখন আবার রিফাতকে বেধড়ক বেত্রাঘাতে আহত করেছেন তিনি। এটা খুবই দুঃখজনক। তাই আমরা ফজলুরের শাস্তি দাবি করছি। তার শাস্তি হওয়া উচিত।

এ ব্যাপারে রিফাতের বাবা নুরুজ্জামান বলেন, আমার ছেলেকে আরবি ‘ফাঁ’ শব্দটি সঠিকভাবে উচ্চারণ করতে না পারায় যেভাবে প্রহার করা হয়েছে। তা কোনোভাবেই একজন শিক্ষকের কাজ হতে পারে না। আমি ওই শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

অভিযুক্ত শিক্ষক ফজলুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমাদের কাজ শিক্ষার্থীদের শিখানো। পড়া না পারলে একটু-আধটু শাসনতো করতেই হয়।

মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক রাশেদুজ্জামান বলেন, চিকিৎসা দেওয়ার পর ছেলেটি বর্তমানে আশঙ্কামুক্ত। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে কিছুদিন সময় লাগবে।

মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমরা অবগত নয়। কেউ অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

(মধুপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইল.কম)/-