রাণীনগরে এক যুগ ধরে রশিতে বাঁধা সুজনের পৃথিবী

কিশোর বয়সে পা দেয়ার আগেই মাত্র ১২বছর বয়সের মাথায় রশিতে বাধা পড়ে মানসিক ভারসাম্যহীন সুজন আলীর পৃথিবী। জন্মের ২৫ বছরের মধ্যে প্রায় ১২ বছর ধরে রশিতে বেঁধে রাখা হয়েছে তাকে। ঘটনাটি নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার ৬নং কালীগ্রাম ইউনিয়নের করজগ্রামের।

সরেজমিনে ও সুজনের মা রিজিয়া বেওয়ার তথ্যে দেখা যায়, জন্মের পর থেকে সুজনের মাঝে কিছুটা অস্বাভাবিক আচার-আচরণ ধরা পড়ে। বর্তমানে মাটির বাড়ির বারান্দার বাঁশের সঙ্গে হাতে মোটা রশি দিয়ে বেধে রাখা হয়েছে সুজনকে। হাতে রশি বাধা অবস্থায়ই এদিক-ওদিক ছোটাছুটি করছে সুজন।

করজগ্রামের কৃষক মৃত- লিতব আলী মন্ডলের নয় ভাই-বোনের মধ্যে সুজন ৬ষ্ঠ ছেলে। শীত, গ্রীষ্ম ও বর্ষা মৌসুমেও সুজনের একমাত্র আশ্রয়স্থল বাড়ির এই উঠান।

প্রায় ১০বছর আগে ওর বাবার মৃত্যুর পর কোন উন্নত মানের চিকিৎসা জোটেনি সুজনের। হাতের বাঁধন খুলে দিলেই পথচারীদের ধাক্কা দেয়, দুর্ঘটনা ঘটায় সুজন।

কালীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বাবলু মন্ডল বলেন, সুজনের উন্নত চিকিৎসার জন্য পরিষদ ও নিজের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন বলেন, সুজনের বাড়িতে গিয়ে সর্বশেষ অবস্থা জেনে ও পরিবারের সঙ্গে কথা বলে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহণের চেষ্টা করা হবে।

(রাজেকুল ইসলাম, রাণীনগর,নওগাঁ/ ঘাটাইলডটকম)/-