রাজশাহীতে পর্নোগ্রাফি মামলার আসামী ঘাটাইলে আটক

রাজশাহীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় দায়ের করা পর্নোগ্রাফি মামলার আসামী টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১২, সিপিসি-৩, টাঙ্গাইল।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী হলো মো. আমিনুল ইসলাম (২২)। সে ঘাটাইল উপজেলার রূপের বয়ড়া গ্রামের মো. জহির উদ্দিনের ছেলে।

র‌্যাব-১২, সিপিসি-৩, টাঙ্গাইলের ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার, সিনি. সহকারী পুলিশ সুপার মো. রওশন আলী বলেন, আমিনুলের বিরুদ্ধে রাজশাহীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় ২০১২ সালের পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন (৮)(১) ও (৩) ধারা, ২৬/০৭/২০২০ তারিখে একটি মামলা হয়।

মামলার পর থেকেই আমিনুল পলাতক ছিল।

রাজশাহীর মহানগরীর এক কলেজছাত্রীর (২২) অশ্লীল ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করায় ঘাটাইল উপজেলার রূপের বয়ড়া গ্রাম থেকে আমিনুল ইসলামকে রোববার রাতে ১২টার দিকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে ৯ আগস্ট (রোববার) বিকেল আনুমানিক সাড়ে ৪টার দিকে তার বাড়ি উপজেলার লোকেরপাড়া ইউনিয়নের রূপের বয়ড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে তাকে কাশিয়াডাঙ্গা থানায় পাঠিয়ে দেয়া হয়।

রাজশাহী মহানগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, একটি বেসরকারি নার্সিং ইনস্টিটিউটে অধ্যয়নরত রাজশাহী মহানগরীর কাশিয়াডাঙ্গা এলাকার এক ছাত্রীর সাথে গত দেড় বছর আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে আমিনুলের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর সুবাদে আমিনুল টাঙ্গাইল থেকে কয়েকবার রাজশাহী আসেন। এ সময় তাদের দেখা হয়।

কিন্তু গত দুই মাস থেকে আমিনুল তাদের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি বিভিন্ন আইডি ব্যবহার করে ফেসবুকে পোস্ট করতে থাকেন। ফলে ওই ছাত্রীর ছবি ভাইরাল হয়ে পড়ে। বিষয়টি নজরে এলে ওই ছাত্রী গত ২৬ জুলাই কাশিয়াডাঙ্গা থানায় আমিনুলকে আসামী করে পর্নোগ্রাফি আইনে একটি মামলা করেন।

ওসি জানান, প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদে তিনি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। আজ সোমবার (১০ আগস্ট) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-