মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা সুবহান কারাগারে মারা গেছেন

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সাবেক নায়েবে আমির আবদুস সুবহান (৮৬) মারা গেছেন। আজ শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা দেড়টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। ঢাকার কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে থাকা অবস্থায় গত ২৪ জানুয়ারি তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. বাচ্চু মিয়া সুবহানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি। সুবহান বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন।

জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির মুহাম্মদ আবদুস সুবহান একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত। পাবনা জেলা জামায়াতের প্রতিষ্ঠাতা আমির সুবহান একাত্তরে দলটির কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধ শুরুর পর পাবনায় শান্তি কমিটি গঠিত হলে সুবহান প্রথমে ওই কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও পরে সহসভাপতি হন।

২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্ত থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সুবহানকে আটক করে। ২৩ সেপ্টেম্বর তাঁকে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এর পর থেকে তিনি কারাগারেই ছিলেন।

জামায়াতে ইসলামীর ওই সময়ের নায়েবে আমির মুহাম্মদ আবদুস সুবহানের মৃত্যুদণ্ড দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল-২ এ রায় ঘোষণা করেন।

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইলডটকম)/-