মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ১৩ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নারী ও শিশুসহ ১৩ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। এরা সবাই এক গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। গতকাল মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) তাদের রক্ত পরীক্ষা করে ডেঙ্গু জীবাণু পাওয়া যায়।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায় জানান, চিকিৎসাধীন রোগীদের রক্ত পরীক্ষা করে ডেঙ্গু শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের সবাইকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীরা হলেন- উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের ইচাইল গ্রামের পরি বেগম (৩০), বাগজান গ্রামের রানা (২৮), মহেড়া ইউনিয়নের মহেড়া গ্রামের হাবেল মিয়া (৩০), ফতেপুর ইউনিয়নের কুরণী গ্রামের শফিক মিয়া (৩৫), তরফপুর ইউনিয়নের টাকিয়া কদমা গ্রামের আবু সাইদ মিয়া (৩৫), আজগানা ইউনিয়নের কুড়িপাড়া গ্রামের মজিবর রহমান (৩৭), বহুরিয়া ইউনিয়নের দিঘুলিয়া গ্রামের জুয়েল হোসেন (৩০), মুন্দিরাপাড়া গ্রামের সেলিম মিয়া (২১), ভাওড়া ইউনিয়নের ভাওড়া নয়াপাড়া গ্রামের রোবেল মিয়া (২৩), উয়ার্শী ইউনিয়নের বন্দ্যে কাওয়ালজানী গ্রামের ফয়সাল (১৫), গোড়াই ইউনিয়নের ক্যাডেট কলেজ এলাকার ইকবাল হোসেন (২০) ও পার্শ্ববর্তী নাগরপুর উপজেলার ঘাঘরা গ্রামের সোহেল রানার ছেলে রোহান আহমেদ (২)।

এছাড়া গোড়াই গ্রামের লিটন মিয়া নামে একজন ডেঙ্গু শনাক্তের পর হাসপাতাল থেকে ছুটি নিয়ে অন্যত্র গিয়েছেন বলে জানা গেছে।

(মির্জাপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-