মির্জাপুরে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে যৌতুক না পেয়ে পরিকল্পিতভাবে সুমাইয়া আক্তার শীলা (২৩) নামের এক গৃহবধূকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্বামী আবু তাহের খানের বিরুদ্ধে। শনিবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে এ ঘটনায় অভিযুক্ত আবু তাহেরকে গ্রেফতার করে মির্জপুর থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অভিযোগের তদন্তকারি কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মুরাদ জাহান।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের দেওড়া গ্রামে চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে সুমাইয়া নামের ওই গৃববধুকে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এঘটনায় শুক্রবার বিকেলে মির্জাপুর থানায় অভিযোগ দেন হত্যা চেষ্টার শিকার গৃহবধূর মা শায়লা বেগম।

ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, ৫ বছর আগে টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার ধানকী মহেড়ার গ্রামের রহমত আলীর ছেলে তাহের খানের সাথে বিয়ে হয় সুমাইয়া আক্তার শিলার। ৩ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে তাদের। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই মাঝে মাঝে স্ত্রী সুমাইয়ার কাছে শ্বশুর বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলে তাহের। টাকা না দেওয়ায় তাহের নিজে ও তার মা-বোন তার উপর শারিরিক–মানসিক নির্যাতন চালাতো।

আরও জানা যায়, বৃহস্পতিবার মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে চলন্ত অবস্থায় তাকে কুনুই দিয়ে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয় স্বামী তাহের খান। এতে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেও গুরুতর আহত হয় সুমাইয়া আক্তার শীলা। বর্তমানে ওই গৃহবধূ মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

(মির্জাপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-