মাদক বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় দেলদুয়ারে শিক্ষার্থীকে মারধর

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার আলসা উত্তরপাড়া গ্রামে মাদক বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় ওই গ্রামের মো. রোস্তম আলীর ছেলে সদ্য এসএসসি পাস করা শিক্ষার্থী মো. সোহাগকে হাত-পা বেঁধে মারধর করেছে বিক্রেতারা।

এ বিষয়ে আহত সোহাগের মা মোছা. বিউটি বেগম বাদি হয়ে সোমবার(৬ জুলাই) দেলদুয়ার থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে প্রকাশ, দেলদুয়ার উপজেলার নলুয়া গ্রামের মৃত কামাল হোসেনের ছেলে মো. জাকির হোসেন(৪৮), ধুলটিয়া গ্রামের কালু শীলের ছেলে আশিষ শীল (১৮) ও একই গ্রামের মো. জাকিরের ছেলে মো. রাজন (১৯) একই উপজেলার আলসা উত্তরপাড়া গ্রামে মো. রোস্তম আলীর বাড়ির আশেপাশে অবস্থান করে মাদক সেবন ও বিক্রি করে থাকে।

ওই এলাকায় মাদক বিক্রি ও সেবনে বাঁধা দেয়ায় মো. রোস্তম আলীর ছেলে মো. সোহাগের সাথে বিক্রেতাদের বিরোধ সৃষ্টি হয়। গত ৫ জুলাই বিকালে উল্লেখিত ব্যক্তিরা আলসা উত্তরপাড়া কাঁচা রাস্তার পাশে বসে মাদক সেবন করাকালে মো. সোহাগ বাঁধা দেয়।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উল্লেখিতরা মো. সোহাগকে (১৭) জোর করে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় উঠিয়ে মো. জাকির হোসেনের বাড়িতে নিয়ে হাত-পা বেঁধে মারধর করে।

খবর পেয়ে মোছা. বিউটি বেগম স্থানীয় গণ্যমান্য লোকদের নিয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে সোহাগকে উদ্ধার করে দেলদুয়ার উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরে তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. নজরুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তদন্তের পর বিস্তারিত জানানো যাবে।

(দেলদুয়ার সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-

Print Friendly, PDF & Email