মসজিদুল আকসায় ঢুকে পড়েছে শত শত ইহুদি, সঙ্গে ভারী অস্ত্রসজ্জিত ইসরাইলি সেনারা

মুসলমানদের প্রথম কেবলা পবিত্র মসজিদুল আকসায় ঢুকে পড়েছেন শত শত ইহুদি। তাদের সঙ্গে রয়েছেন ভারী অস্ত্রসজ্জিত ইসরাইলি বিশেষ বাহিনীর সেনারা। অবৈধ দখলদার ইসরাইলিরা তাদের প্যাসওভার দিবস উদযাপন করতে আল আকসা মসজিদে অনুপ্রবেশ করেছেন।

গত রোববার থেকে এই অনুপ্রবেশ শুরু হলেও বৃহস্পতিবার ভোরে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক ইহুদিকে নিয়ে ইসরাইলি সেনারা আল আকসায় ঢুকে পড়েন। তাদের অনুপ্রবেশ বন্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন ফিলিস্তিনি তরুণরা। এ সময় ইসরাইলি সেনারা কাঁদানে গ্যাস, রবার বুলেট ও তাজা গুলি নিক্ষেপ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেন।- আল জাজিরার।

ফিলিস্তিনি সংবাদ সংস্থা ওয়াফা জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে অন্তত ৫০০ অবৈধ দখলদার মসজিদের ভেতরে অনুপ্রবেশ করেন। এর পর তারা কুব্বত আসসাখরার পাশে ইহুদি ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করেন।

ফিলিস্তিনের ধর্মীয় অভিভাবক পরিষদের (রিলিজিয়াস এন্ডোওমেন্টস অথরিটি) মুখপাত্র ফিরাস আল দিব জানান, বৃহস্পতিবার অন্তত ৪৯১ অবৈধ বসতিস্থাপনকারী ইহুদি ও ভারী অস্ত্র সজ্জিত ইসরাইলের বিশেষ বাহিনীর ১৩ কর্মকর্তা মসজিদের ভেতরে ঢুকে পড়েন।

এ নিয়ে গত রোববার থেকে এ পর্যন্ত এক হাজার ৭৩১ জন দখলদার ইহুদি অবৈধভাবে মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রবেশ করেছেন।

তাদের এই অনুপ্রবেশে ফিলিস্তিনিরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তাদের আশঙ্কা, কট্টরপন্থী ইহুদিরা মসজিদুল আকসার নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করতে পারেন।

ইহুদিদের দাবি, ওই পবিত্র স্থানে বাইবালে উল্লিখিত তাদের ধর্মীয় নেতা জোসেফকে কবর দেয়া হয়েছে। কোরআনের বর্ণনা অনুযায়ী, জোসেফ হলেন হযরত ইউসুফ (আ)। মুসলমানদের কাছে তিনি একজন সম্মানিত নবী।

তবে ফিলিস্তিনিরা জানিয়েছেন, জালজালিয়াতির জন্য কীর্তিমান ইহুদিরা আসলে মুসলিম ধর্মীয় নেতা শেখ ইউসুফ দায়িকতের কবরকে ইউসুফ নবীর কবর দাবি করেছেন। আর এর নেপথ্যে রয়েছে আল আকাসার ওপর তাদের ভুয়া অধিকার প্রতিষ্ঠার মতলব।

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইল.কম)/-