ভূঞাপুরে নিশো’র বাবা মুক্তিযোদ্ধা ভোলা মিয়ার দাফন সম্পন্ন

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় নাট্য অভিনেতা আফরান নিশো’র বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ ভোলা মিয়া। তিনি টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের সদস্য ও ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ভারই দ্বীমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ছিলেন।

আজ বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) বিকাল ৫ টায়  ভূঞাপুর পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

তারআগে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি ও বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর উপস্থিতে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার প্রদান প্রদর্শন করা হয়।

পরে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তার মরদেহে পুষ্পঅর্পন করে শেষ শ্রদ্ধা জানান।

এরআগে ঢাকা থেকে লাশবাহী গাড়িতে আব্দুল হামিদ ভোলা মিয়ার মরদেহ বিকাল ৩ টার দিকে উপজেলার ভারই গ্রামের নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসা হয়। এরসময় চারদিকে কান্নায় ভেঙে পড়েন আত্মীয়-স্বজনসহ অন্যান্যরা। নেমে আসে শোকের ছায়া।

বীরমুক্তিযোদ্ধার জানাযা নামাজে উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় সাংসদ ছোট মনির, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আব্দুল হালিম এ্যাডভোকেট, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র মাসুদুল হক মাসুদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম বাবু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আসলাম হোসাইন, থানা অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ ভোলা মিয়ার ছেলে ও নাট্য অভিনেতা আফরান নিশো প্রমুখসহ অন্যান্যরা।

প্রসঙ্গত: বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ ভোলা মিয়া দীর্ঘদিন ধরে কিডনিসহ বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত ছিলেন। এছাড়াও তিনি বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এ  আক্রান্ত হয়েছিলেন। সম্প্রতি অবস্থার অবনতি হলে তাকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের আইসিইউতে রাখা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সকাল ৭টায় সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে যান তিনি। পরে জানাযা শেষে সন্ধ্যায় পৌরসভার ছব্বিশাস্থ ভূঞাপুর কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ২ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

(ফরমান শেখ, ঘাটাইল ডট কম)/-