ভুঞাপুরে সরকারি অফিস কক্ষে শিক্ষা অফিসারের জন্মদিন পালন!

টাঙ্গাই‌লের ভূঞাপু‌রে প্রাথ‌মিক শিক্ষা অ‌ফি‌সের শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষক‌দের নি‌য়ে ঘটা করে জন্ম‌দিন পালন ক‌রে‌ছেন এক কর্মকর্তা। পরে জন্ম‌দিন পাল‌নের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে শেয়ার করলে প্রশ্ন উঠে সরকারি কর্মচারী আচরণবিধি লঙ্ঘন ও শিষ্টাচার নিয়ে।

র‌বিবার (২০ সে‌প্টেম্বর) উপ‌জেলা প্রাথ‌মিক শিক্ষা অফিসের শিক্ষা কর্মকর্তার অ‌ফি‌সে সহকা‌রি শিক্ষা অফিসার মাহবুর রহমানের জন্ম‌দিন পালন করা হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়া ছ‌বি‌তে দেখা যায়, উপজেলা শিক্ষা অফিসার শাহওনেয়াজ পারভীন তার অ‌ফিস ক‌ক্ষে তারই সহকর্মী সহকা‌রি শিক্ষা অ‌ফিসার মাহবুব রহমান‌কে কেক খাই‌য়ে দি‌চ্ছেন।

এরআ‌গে, জন্ম‌দিন উপল‌ক্ষে মোমবা‌তি ও ঝাড় মোম জ্বা‌লিয়ে জন্ম‌দি‌নের শু‌ভেচ্ছা জানা‌চ্ছেন বি‌ভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অ‌ফিসে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

প‌রে ওই সহকারী শিক্ষা অফিসার তার নি‌জের ফেইসবুকের টাইমলাইনে জন্ম‌দিন পাল‌নের ছ‌বিযুক্ত ক‌রে শিক্ষা অফিসার, সহকর্মী ও শিক্ষ‌কদের ধন্যবাদ জা‌নি‌য়ে পোস্ট দেন। এরপর দ্রুতই তা ভাইরাল হয়।

প্রশ্ন উঠে সরকারি কর্মচারী আচরণবিধি লঙ্ঘন ও করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে প্রাথ‌মিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ে ঘটা করে কর্মকর্তার জন্মদিন পালন নিয়ে।

সামা‌জিক যোগা‌যোগ মাধ্যমে বিষয়টি মিশ্র প্রতি‌ক্রিয়া দেখা দিলে নিজের টাইমলাইন থেকে পোস্ট সরিয়ে নেন ওই কর্মকর্তা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষক বলেন, এই কর্মকর্তারা নিজেদের রাজা মনে করেন। আর সকল শিক্ষকরা তাদের প্রজা। তাদের বিরুদ্ধে কোনো কথা বলা যাবে না। এই শিক্ষা কর্মকতার ব্যবহার কর্কশ। তাদের প্রতিনিয়ত অনৈতিক চাপে শিক্ষকরা জিম্মি।

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার শাহওনেয়াজ পারভীন বলেন, ‘এটা কোনো বিষয়ই না। সাধারণ এক‌টি বিষয়। ওনারা আমাকে একটু হাইলাইট করার জন্যই ফেইসবুকে পোস্ট করেছে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. নাসরীন পারভীন বলেন, ‘শিক্ষা দপ্তরের জন্মদিন পালনের বিষয়ে আমি অবগত নই।’

(ফরমান শেখ, ঘাটাইল ডট কম)/-