ভাষা সৈনিক মতিনের গ্রামে কলাগাছে তৈরি ক্ষনিকের শহীদ মিনার!

ভাষা আন্দোলনের আহ্বায়ক ভাষা সৈনিক আব্দুল মতিনের জন্ম সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার উমরপুর ইউনিয়নের ধুবুলিয়া-শৈলজানা গ্রামে। এখানে ভাষা শহীদদের স্মরণে করতে এখনো ভরসা কলাগাছের শহীদ মিনার। ২০০৮ সালে একটি এনজিও পাকা শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠা করেছিল। কিন্তু পাঁচ বছর আগে সেটি যমুনায় বিলীন হয়ে গেছে। তখন থেকে আবারো অতীতের মতো কলাগাছের শহীদ মিনার বানিয়ে দিবসটি উদযাপন করছেন এলাকাবাসী।

এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি, চলছে কলাগাছ দিয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের কাজ।

তবে তার গ্রামের বাড়ি শাহজাদপুর উপজেলার গুদিবাড়িতে এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ বিশ্বাস একটি দৃষ্টিনন্দন শহীদ মিনার নির্মাণ করে দেন। তাই এবার এখানে সাড়ম্বরে পালিত হবে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ভাষা দিবস ও জাতীয় শহীদ দিবস।

এবার স্থানীয় গ্রামের কলেজ ছাত্র মনিরুল ইসলাম, রুহুল আমীন, স্কুল ছাত্র এনামুল হক, নাজমুল ইসলামরা শহীদ মিনার নির্মাণ করছেন। তারা জানান, ভাষা মতিনের গ্রামে শহীদ মিনার না থাকার কষ্ট পুরো গ্রামবাসীর। তবে ভাষার প্রতিষ্ঠাতার গ্রামে আমরা ভাষা দিবস উদযাপন করবো না, এটা হতে পারে না। তাই কলাগাছ দিয়েই অতীতের মত আমরা শহীদ মিনার বানিয়েছি।

আমাদের চরবাসীর সেরকম সামর্থ নেই। যদি কেউ সহযোগীতা করে আমাদের এখানে পুর্নাঙ্গ শহীদ মিনার তৈরি করে দিতেন তাহলে আমরা কৃতজ্ঞ থাকতাম।

(ইত্তেফাক, ঘাটাইলডটকম)/-

197total visits,3visits today