বিসিএস হতাশায় মির্জাপুরে শ্বশুরবাড়িতে যুবকের আত্মহত্যা

টাঙ্গাইলের করটিয়া সরকারি সা’দত বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষিকা আইভি আক্তারের স্বামী মনিরুল ইসলাম মনির (৩০) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার পৌর সদরের বংশাই রোডস্থ বাইমহাটি বাজারের মো. কয়েদ আলীর (শ্বশুড় বাড়ি) ৩ তলা ভবনের একটি রুমে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে মনির।

নিহত মনির যশোর জেলার মণিরামপুর উপজেলার বাসুদেব গ্রামের আনোয়ার গাজীর ছেলে। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে হতাশাগ্রস্থ হয়ে তিনি এ ঘটনাটি ঘটিয়েছেন।

জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিসাববিজ্ঞানে মাস্টার্স করা মনির মোট চারবার বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। সবশেষ বিসিএস পরীক্ষায় প্রিলিতে চান্স পাওয়ার পর ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার ফলে শেষ লিখিত পরীক্ষাটিও দেওয়া হয় না তার। এরপর থেকে তার হতাশা আরও বৃদ্ধি পায়।

বিসিএস ক্যাডার স্ত্রীর স্বামী ঘরে বসে বেকার দিন পার করছে এই হতাশাই তাকে কুড়ে কুড়ে খাচ্ছিল। তাই মনির বিসিএস আর ভাল একটি চাকরির জন্য ব্যাকুল ছিল। কিন্তু যখন তার ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে যায় তখন তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।

নিহত মনিরের স্ত্রী আইভি আক্তার একজন বিসিএস ক্যাডার। বিবাহিত জীবনে তাদের ১ এক পুত্র সন্তান ও এক কণ্যা সন্তান রয়েছে।

নিহতের স্ত্রী আইভি আহাজারি করতে করতে জানায়, এ ঘটনার কিছুক্ষণ আগেও ও আমাকে বুকে জড়িয়ে শুয়েছিল। ওর সব সম্পত্তি আমার নামে লিখে দিতে চেয়েছিল। আমি না করেছি। কোনভাবেই বুঝতে পারিনি ও মনে মনে এই সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিল।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মিজানুল হক বলেন, লাশটি ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(জাহাঙ্গীর আলম, ঘাটাইলডটকম)/-

689total visits,1visits today