১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে মে, ২০২০ ইং

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস ও বাংলাদেশী সাংবাদিক কাজল

মে ৩, ২০২০

আজ বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস। প্রতি বছর ৩ মে সারা বিশ্বে এই দিবসটি পালিত হয়। এ বছর এমন এক পরিস্থিতিতে দিবসটি এসেছে, যখন করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিশ্ব স্তম্ভিত। এ বছর দিবসটির স্লোগান, ‘ভয় বা পক্ষপাতিত্ববিহীন সাংবাদিকতা’। এদিকে দীর্ঘদিন নিখোঁজ থাকা বাংলাদেশী সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে উদ্ধারের পর দু’হাত পিছমোড়া করে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে আদালতে নিয়ে আসার ঘটনায় সাংবাদিক ও সচেতন মহলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

রবিবার (৩ মে) বেলা তিনটার দিকে শফিকুল ইসলাম কাজলকে (৫১) যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। ওই সময় পুলিশের উপস্থিতিতে তার দু’হাত পেছন দিক থেকে হ্যান্ডকাফ দ্বারা লক করা ছিল।

এ বিষয়ে যশোরের আইনজীবী মাহমুদ হাসান বুলু বলেন, সাংবাদিক কাজলের নিখোঁজের ঘটনায় দেশি-বিদেশি মিডিয়ার কল্যাণে দেশের বহু মানুষ তার সম্পর্কে জেনেছে। তিনি পালিয়ে যাওয়ার মতো মানুষও নন। তার সঙ্গে এমন আচরণ শোভনীয় নয়।

অবশ্য, পুলিশ কর্মকর্তা বলছেন, ইদানীং মামলার আসামিদের হাত পেছন দিক দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরানোর বিধান শুরু হয়েছে। এটি ভুল হয়নি।

গতকাল শনিবার (২ মে) রাতে যশোরের বেনাপোল সীমান্ত থেকে সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে উদ্ধারের দাবি করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর রঘুনাথপুর ক্যাম্পের সদস্যরা। অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের অভিযোগে তাকে আটক দেখিয়ে থানায় হস্তান্তর করা হয়। এরপর আজ রবিবার সকালে তাকে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে বেলা ১২টার দিকে তাকে যশোরের আদালতে পাঠায় পোর্ট থানার পুলিশ।

বেনাপোল থানার ওসি মামুন খান জানান, বেনাপোল থেকে পাঠানোর সময় তার পিছমোড়া দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরানো ছিল না। নিয়ে যাওয়ার সময় হয়তো দেওয়া হতে পারে। তবে, এটি ভুল নয় দাবি করে তিনি বলেন, মাস ছয়েক হলো মামলার আসামিদের পিছমোড়া দিয়ে হ্যান্ডকাফ পরানোর নিয়ম হয়েছে।

এদিকে বেলা তিনটায় আদালতে উপস্থিত বিভিন্ন মিডিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে কাজল কুশল বিনিময় করেন। সেই সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখন আলোর মুখ দেখছি, আমি দেশবাসীর দোয়া চাইছি!’ সাংবাদিক কাজলের ছেলে মনোরম পলকও আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এরপর কাজলকে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়। সেখানেই তিনি দুপুরের আহার গ্রহণ করেন। বেলা চারটার পর বিচারক এজলাসে ওঠেন।

১৯৯১ সালে ইউনেস্কোর ২৬তম সাধারণ অধিবেশনের সুপারিশ মোতাবেক ১৯৯৩ সালে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় ৩ মে তারিখটিকে ‘ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ডে’ অর্থাৎ বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবসের স্বীকৃতি দেওয়া হয়। এরপর থেকে বিশ্বব্যাপী সাংবাদিকরা এ দিবসটি পালন করে আসছেন।

সাংবাদিকতার স্বাধীনতা ও মুক্ত গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার মৌলিক নীতিমালা অনুসরণ, বিশ্বব্যাপী গণমাধ্যমের স্বাধীনতার মূল্যায়ন, স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ প্রতিহত করার শপথ গ্রহণ এবং পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে ক্ষতিগ্রস্ত ও জীবনদানকারী সাংবাদিকদের স্মরণ ও তাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয় এই দিবসটিতে।

বাংলাদেশের গণমাধ্যমের অবস্থা কেমন? গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে কর্মরত আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘‘রিপোটার্স স্যান্স ফ্রন্টিয়ার্স’’ বা আরএসএফ এর এপ্রিলের শেষার্ধে প্রকাশিত ২০২০-এর রিপোর্টে দেখা গেছে, বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান বর্তমানে ১৫১তম স্থানে- যা এর আগের বছর ছিল ১৫০তম স্থানে। ২০১৮ সালে ছিল ১৪৬তম স্থানে।

এ সম্পর্কে ভয়েস অব আমেরিকার এক রিপোর্টে বলা হয়েছে- দুর্নীতিবিরোধী আন্তর্জাতিক সংস্থা টিআইবি, বাংলাদেশের মানবাধিকার সংগঠন আইন ও শালিস কেন্দ্রসহ অনেক সংস্থাই বাংলাদেশের গণমাধ্যমের স্বাধীনতার নিম্নধারার পরিস্থিতিতে বিভিন্ন সময় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

সম্প্রতি প্যারিসভিত্তিক সংস্থা রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার (আরএসএফ) বার্ষিক সূচক প্রকাশ করেছে। আরএসএফের সূচকে থাকা ১৮০টি দেশের মধ্যে এখন বাংলাদেশের অবস্থান ১৫১তম। ২০১৯ সালে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৫০তম।

গণমাধ্যমের এই বুমের মধ্যে স্বাধীনতা সূচকে কেন পেছনে হাঁটছে বাংলাদেশ?

সাংবাদিকতার শিক্ষক, সাংবাদিক নেতা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিরা বলছেন, কেবল সুষ্ঠু গণতন্ত্রই প্রেস ফ্রিডম নিশ্চিত করতে পারে। আর মুক্ত সাংবাদিকতার জন্য দরকার সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান তৈরি করার সক্ষমতা। যে পথে এখনও সফল হয়নি বাংলাদেশ।

প্রায় ১১ বছর আগে, ২০০৯ সালে বৈশ্বিক সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১২৩ নম্বরে। অর্থাৎ এই ১১ বছরে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সূচকে বাংলাদেশ ২৮ ধাপ পিছিয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ সবার পেছনে। বিশ্বজুড়ে সংবাদমাধ্যম স্বাধীনতা সূচক ২০২০-এ শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে নরওয়ে। শীর্ষ পাঁচ দেশের সবই ইউরোপের। তালিকার সর্বশেষ দেশ উত্তর কোরিয়া। এদিকে এই সংগঠনের হিসাব বলছে, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত এই ২২ বছরে বাংলাদেশে ৩৫ জন সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে। ২০১৯-এর ‘সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপরাধের বিচারহীনতা’ আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে সংস্থাটির বাংলাদেশ শাখা এ তথ্য জানায়।

র‌্যাংকিংয়ে এই পিছিয়ে পড়ার কারণ বলতে গিয়ে বিশিষ্ট সাংবাদিক গাজী টেলিভিশন (জিটিভি), সারাবাংলা ডটনেট ও দৈনিক সারাবাংলার (প্রকাশিতব্য) এডিটর-ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেন, আমাদের মধ্যে স্বাধীনতার চর্চা কম এবং গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠান তার কাজ ঠিকমতো করছে না। আর করছে না বলেই মুক্ত সাংবাদিকতার ওপর সেই চাপটি এসে পড়ে।

তিনি বলেন, সঠিক রাজনৈতিক নেতৃত্ব নেই, সম্পাদকীয় প্রতিষ্ঠান তৈরির চেষ্টা নেই, সাংবাদিকদের মধ্যে এটা গড়ে তোলার আকাঙ্ক্ষা নেই। কিন্তু এটা কখনও ভাবা ঠিক নয় যে, লড়াইটা গণমাধ্যমকর্মীর একার। এটা সমাজেরও লড়াই। সমাজের এই দুই গোষ্ঠী কেন একসঙ্গে হতে পারলো না সেটা নিয়ে ভাববার আছে। তিনি আরও বলেন, আমরা পারছি না কারণ সংসদ কাজ করছে না, আমলাতন্ত্র এখানে বিবর্তনমূলক। এটা একার লড়াই না। প্রেসফিডম ১৬ কোটি মানুষের বাক স্বাধীনতার লড়াই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, আমাদের পিছিয়ে পড়ার কারণ এখানে স্বচ্ছ গণতন্ত্র ব্যবস্থা নেই। যেকোনও সংকটকালীন সময়ে তথ্যের অবাধ আদান-প্রদান থাকতে হবে। কিন্তু এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে আমরা তথ্য লুকানোর মতো ঘটনা দেখতে পাচ্ছি। ত্রাণের বিষয়ে রিপোর্ট করার অভিযোগে একাধিক মামলা হয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে। করোনা পরবর্তী সময়ে আরও কর্তৃত্ববাদী হয়ে উঠবে রাষ্ট্র। সেই শঙ্কা থাকছে। ফলে খুব শিগগিরই আমরা র‌্যাংকিংয়ে এগোতে পারবো বলে আমার মনে হয় না।

সিনিয়র সাংবাদিক ও চ্যানেল আইয়ের সম্পাদক (অনলাইন) জাহিদ নেওয়াজ খান বলেন, গণমাধ্যমের কাজ যখন সত্য উন্মোচন তখন বাস্তব কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সরকার তার বন্ধু হতে পারে না, বা সরকার চাইলেও গণমাধ্যম তার বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিতে পারে না। কিন্তু বাংলাদেশের বেশিরভাগ গণমাধ্যম বিশেষ করে গত এক দশকে অনেকটাই সেই হাত বাড়িয়ে রেখেছে। এটা শুধু সরকারের রোষানলে পড়ার ভয় থেকে নয়, বরং গণমাধ্যমের মালিকানার যে চরিত্র-মালিকপক্ষের নানামুখী পুঁজি থেকে নানামুখী ব্যবসার আরও সম্প্রসারণ এবং তার সুরক্ষাই আসল কারণ। এর সঙ্গে সাংবাদিকদের একটি অংশও সেই সুরক্ষা দিতে নিজেদের সেভাবে গড়ে তুলেছেন। আপনি দেখবেন গণমাধ্যমের নেতৃত্ব বাছাইয়ে মালিকপক্ষ এমন কাউকে খোঁজেন যিনি সরকারের সঙ্গে সেতুবন্ধন হতে পারবেন, পেশাদারিত্ব দেখেন না। আবার সাংবাদিকরাও নিজেদের সেভাবে গড়ে তুলছেন। এটা সমস্যার একটা বড় দিক।

ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডম ডে-এর এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘ভীতি অথবা আনুকূল্য-মুক্ত সাংবাদিকতা’। এবার সাংবাদিকের সুরক্ষা, রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক প্রভাব থেকে স্বাধীনতা আর জেন্ডার সমতার মতো সুনির্দিষ্ট বিষয়গুলো প্রাধান্য পাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল ১০ মার্চ সন্ধ্যায় ‘পক্ষকাল’-এর অফিস থেকে বের হন। এরপর থেকে কোনও সন্ধান না পেয়ে পরদিন ১১ মার্চ চকবাজার থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তার স্ত্রী জুলিয়া ফেরদৌসি নয়ন। ১৩ মার্চ জাতীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে শফিকুল ইসলাম কাজলকে সুস্থ অবস্থায় ফেরত দেওয়ার দাবি জানায় পরিবার। ১৮ মার্চ প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচির মাধ্যমে সাংবাদিক কাজলের সন্ধান চাওয়া হয়। পরে ১৮ মার্চ রাতে কাজলকে অপহরণ করা হয়েছে অভিযোগ এনে চকবাজার থানায় মামলা করেন তার ছেলে মনোরম পলক। সাংবাদিক কাজল নিখোঁজ হওয়ার পর তার সন্ধানের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে কয়েক দফা কর্মসূচি পালন করেছেন সাংবাদিক সহকর্মী ও পরিবারের সদস্যরা।

(বিবিসি, প্রথম আলো, ঘাটাইল ডট কম)/-

রিলেটেড নিউজ

নতুন ৪ জন সহ টাঙ্গাইলে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১৩৫

নতুন ৪ জন সহ টাঙ্গাইলে করোনা আক্রান্ত বেড়ে ১৩৫

টাঙ্গাইলে নতুন করে আরও চারজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৩৫ জনে। জানা গেছে, আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় দুজন,...

বিস্তারিত
ঘাটাইলে গাজীপুর ফেরত জুলফিকার করোনা আক্রান্ত

ঘাটাইলে গাজীপুর ফেরত জুলফিকার করোনা আক্রান্ত

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার আনেহলা ইউনিয়নে গাজীপুর ফেরত এক যুবকের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আজ বুধবার (২৮ মে) উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়...

বিস্তারিত
অসহায় মানুষদের জন্য আপনাকে বাঁচতে হবে স্যার

অসহায় মানুষদের জন্য আপনাকে বাঁচতে হবে স্যার

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী মহান মুক্তিযুদ্ধের এক কিংবদন্তি যোদ্ধা। রণাঙ্গনে ফিল্ড হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করে প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন অসংখ্য আহত ও অসুস্থ মুক্তিযোদ্ধার।...

বিস্তারিত
ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আগুন, ৫ রোগী নিহত

ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আগুন, ৫ রোগী নিহত

ঢাকার গুলশানে ইউনাইটেড হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে পাঁচজন মারা গেছেন। তারা সবাই করোনার রোগী ছিলেন। নিহতদের মধ্যে চারজন পুরুষ ও একজন...

বিস্তারিত

সাম্প্রতিক প্রকাশনাসমূহ

ফেসবুক (ঘাটাইলডটকম)

Adsense

Doctors Dental

ঘাটাইলডটকম আর্কাইভ

বিভাগসমূহ

Divi Park

পঞ্জিকা

মে 2020
শনি রবি সোম বুধ বৃহ. শু.
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

Adsense

%d bloggers like this: