বার্সেলোনা ছাড়ছেন মেসি

লিওনেল মেসি বার্সেলোনা ছাড়তে চান! শুনতেই গায়ের মধ্যে কাঁটা দিয়ে উঠবে অনেকের। যারা বার্সেলোনার সমর্থক নন, তাদের জন্যও কথাটা হজম করা কঠিন। সত্যিই তাই।

যিনি তার পায়ের জাদুতে হয়ে উঠেছেন বার্সেলোনার প্রতীক, ‘মিস্টার বার্সেলোনা’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন নিজেকে, সেই মেসিই কিনা বার্সেলোনা ছাড়ার অনুরোধ করেছেন!

ক্রীড়াবিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন দিয়েছে বোমা ফাটানো খবরটি।

শুধু ইএসপিএন নয়, ইউরোপ ও বিশ্বের বড় বড় সংবাদমাধ্যমও জানাচ্ছে একই খবর।

বার্সেলোনায় পালাবদলের যে ‘জয়গান’ গাওয়া হচ্ছে, সেখানে নিজেকে রাখতে চাইছেন না ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। প্রাণের ক্লাবে বড্ড হাঁফিয়ে উঠেছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। গ্রাস করা হতাশায় নতুন চ্যালেঞ্জেলের খোঁজে বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত তার।

মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার গুঞ্জন নতুন নয়। অনেক বছর ধরেই তার ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাবে যাওয়ার গুজব ছড়িয়েছে। তবে এবারের বিষয়টি একেবারে ভিন্ন।

বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে ৮-২ গোলের হারের পর ন্যু ক্যাম্পের বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে তার কাছে। আগে থেকেই ছিল বিভিন্ন ঝামেলা। বিশেষ করে, বর্তমান বোর্ডের সঙ্গে দ্বন্দ্ব তার বার্সেলোনা ছাড়ার ভাবনায় প্রভাবক হিসেবে কাজ করেছে।

শোনা যাচ্ছে, নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানের পরিকল্পনায় নেই লুইস সুয়ারেজ। উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারকে নাকি ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার পথ দেখানো হয়েছে।

বার্সেলোনার অল্পবিস্তরও যারা খোঁজখবর রাখেন, তাদের অজানা থাকার কথা নয় সুয়ারেজের সঙ্গে মেসির বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক কতটা মধুর। তার ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার সিদ্ধান্তে সুয়ারেজের বিষয়টিও রাখতে পারে বড় ভূমিকা।

২০০৭ সালের পর প্রথমবার ট্রফিহীন মৌসুম কেটেছে বার্সেলোনার। অর্থাৎ, মেসির মেসি হয়ে ওঠার পর এমন দৃশ্য কখনও দেখতে হয়নি তাকে। ব্যর্থতায় এক বছরের ব্যবধানে তিনবার কোচ বদলের দৃশ্যটাও তার অচেনা।

জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউয়ের বোর্ডের সঙ্গে খেলোয়াড়দের দ্বন্দ্ব গত দুই মৌসুম ধরেই চলে আসছে। এই সবকিছু বিবেচনা নিয়েই হয়তো শৈশবের ক্লাব ছেড়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত মেসির।

২০২১ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি মেসির। এবারের দফায় তিন বছরের চুক্তি করার সময় একটি শর্ত রেখেছিলেন। চাইলে প্রত্যেক মৌসুম শেষে ফ্রি টান্সফারে তিনি ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে পারবেন।

এবারের মৌসুমে সেই সময় শেষ হয়েছে গত ১ জুন। এখন ওই ধারা কার্যকর না হলেও মেসি ক্লাবের কাছে অনুরোধ করেছেন তাকে ছেড়ে দেওয়ার।

এদিকে ইউরোপ-সেরা হওয়ার লক্ষ্যে শেষ পর্যন্ত হোঁচট খেয়েছে পিএসজি। ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ১-০ গোলে হেরে হয়েছে স্বপ্নভঙ্গ। কিন্তু হেরে গিয়ে ভেঙে পড়লে কী আর চলে? পিএসজির কোচ টমাস টুখেলও হতাশা পেছনে ফেলে এর মধ্যে ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করা শুরু করে দিয়েছেন। আর সে পরিকল্পনার কেন্দ্রবিন্দু লিওনেল মেসি!

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইল ডট কম)/-