বাংলা সিনেমার দিক পরিবর্তনকারী ক্ষণজন্মা অভিনেতার জন্মদিন!

বেঁচে থাকলে বাংলা চলচ্চিত্রের ক্ষণজন্মা চিত্রনায়ক সালমান শাহর বয়স হতো ৪৮ বছর। হয়তো এই বয়সেও অজস্র ভক্ত-দর্শকদের অভিনয় মুগ্ধ করতে পারতেন তিনি। কিন্তু তা আর হলো না। অকালে চলে যেতে হলো এই বিস্ময় বালককে। তাকে ছাড়াই ২৩ বছর ধরে প্রিয় নায়কের জন্মদিন পালন করছেন সালমানভক্তরা।

সালমান শাহ নব্বই দশকের বাংলা সিনেমার উজ্জ্বল নক্ষত্র। অল্প সময়ে বাংলা ছবির দর্শকদের মন জয় করেছিলেন। তার প্রতিটি সিনেমা ব্যবসায়িক সাফল্য পেয়েছে।

সালমান শাহ-পরবর্তী সময়ে যারা চলচ্চিত্রে নায়ক হওয়ার জন্য এসেছেন তারা প্রত্যেকেই বলেছেন, বলছেন এখনও- সালমান শাহ-ই ছিলেন তাদের অনুপ্রেরণার প্রধান উৎস। সালমানকে দেখেই তারা নায়ক হতে এসেছেন।

১৯৭১ সালের ১৯শে সেপ্টেম্বর সিলেট নগরীর দাড়িয়াপাড়ায় সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে সালমান শাহ জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা কমরউদ্দিন চৌধুরী ছিলেন একজন সরকারি কর্মকর্তা এবং তার মা নীলা চৌধুরী এক সময়ে রাজনীতি করতেন, একাধিকবার সংসদ নির্বাচনেও অংশ নিয়েছেন।

বিটিভিতে অভিনয় করে শিশুশিল্পী হিসেবে সালমান শাহর ক্যারিয়ার শুরু হয়। অভিনয় করেছেন টিভি নাটক ও বিজ্ঞাপনে। ১৯৯৩ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে সালমান শাহর। প্রথম সিনেমাতেই দর্শকদের মন জয় করে নেন তিনি। তাই এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর মাত্র ২৫ বছর বয়সে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন সালমান শাহ। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৬ সাল, মাত্র তিন বছরে তিনি অভিনয় করেছেন ২৭টি সিনেমাতে। এর মধ্যে বেশিরভাগ সিনেমাই ছিল হিট। তালিকায় রয়েছে- ‘তুমি আমার’, ‘অন্তরে অন্তরে’, ‘সুজন সখি’, ‘বিক্ষোভ’, ‘স্বপ্নের ঠিকানা’, ‘বিচার হবে’, ‘এই ঘর এই সংসার’, ‘তোমাকে চাই’, ‘স্বপ্নের পৃথিবী’, ‘জীবন সংসার’, ‘আনন্দ অশ্রু’র মতো সিনেমা।

অমর নায়ক সালমান শাহর জন্মদিন উপলক্ষে ঢুলি কমিউনিকেশনস আয়োজন করেছে সপ্তাহব্যাপী ‘সালমান শাহ জন্মোৎসব ২০১৯’। রাজধানীর মধুমিতা সিনেমা হলে এটি চলবে ২০ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

বিভিন্ন সময়ে দর্শকপ্রিয় এই নায়কের মৃত্যুর বিষয়ে আলোচনা সমালোচনা হলেও ভক্তরা আজও জানতে পারেনি কেন তাদের প্রিয় নায়ক জীবনকে ছুটি দিয়ে বিদায় নিয়েছিল।

জনপ্রিয় এই নায়কের জন্মদিনে বিভিন্ন সংগঠন, সংবাদপত্র ও টেলিভিশন নানা আয়োজন করে থাকে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সালমান শাহ স্মৃতি পরিষদের আয়োজন। এই সংগঠনটি সালমান শাহ’র জন্ম ও মৃত্যু বার্ষিকী ২০০৩ সাল থেকে নিয়মিত পালন করে আসছে।

(নিজস্ব প্রতিবেদক, ঘাটাইলডটকম)/-