বাঁচতে চায় লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত ঘাটাইলের বকুল

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার উত্তর খিলগাতি গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর একমাত্র সন্তান বকুল হোসেন (১৯) লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত।কেউ যদি লিভার দান করে তবে ট্রান্সপ্ল্যান্ট করলে বাঁচতে পারে এতিম বকুল, তাতে খরচ হবে সম্ভাব্য ৫০ লাখেরও বেশি। সকলের সহযোগিতায় বকুল বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখছে অত্যন্ত কাতর অসহায় চোখে।

জানা যায়, প্রায় ৬ ফুট উচ্চতার নম্র ও ভদ্র ছেলে বকুল অধূমপায়ী ও স্বল্পভাষী। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে থাকাকালীন সময়ে বাবা হারিয়েছেন। তার একবোন জন্মের পর তার আগের মা মারা যান। সেই নবজাতককে অন্যত্র দত্তক দেয়া হয়। পরে তার বাবা আপন শ্যালিকাকে বিবাহ করেন। সে ঘরেই বকুলের জন্ম। বকুলের পিতাও একাই ছিলো। তারও কোন ভাই বোন ছিল না। বকুলের মাও হার্ট এর রোগী। অসুস্থ অবস্থাতেও সে এই বছর এইচএসসি পরীক্ষায় পাশ করেছে।

বকুলের আত্মীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, বছর দুয়েক আগে তার জন্ডিস হয়েছিল। শরীরে দুর্বলতা ছাড়া কোন লক্ষনও বুঝা যায়নি। গত ৯ থেকে ১২ জুলাই তারিখ পর্যন্ত বিএসএমএমইউ (পিজি) হাসপাতালে ভর্তি রেখে তার শারীরিক চেকআপ করালে তারা বলে লিভার ক্যান্সার! বকুলের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পরে।

চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, কেউ যদি লিভার দান করে তবে ট্রান্সপ্ল্যান্ট করলে বাঁচতে পারে বকুল। এতে খরচ হবে সম্ভাব্য ৫০ লাখেরও বেশি।

বকুলের বাড়িসহ সামান্য জমিটুকু বিক্রির চেষ্টা করে বেঁচে থাকার ব্যর্থ চেষ্টা অব্যাহত আছে বকুলের। ইতিমধ্যে জমি জমা বিক্রি করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দুয়েকদিনের ভেতর তাকে আবার বিএসএমইউ (পিজি) হাসপাতালে নেয়া হবে তাকে।

এদিকে বকুলের বাড়িতে কান্নার রোল চলে। তার মাও ছেলেকে ছেড়ে বাঁচতে চান না। ছেলের যদি কিছু হয়ে যায় তার মাকে বাঁচানো যাবে কিনা সন্দেহ প্রকাশ করেছে প্রতিবেশীরা।

বকুলের সহপাঠীরা সহ এলাকাবাসী তাকে বাড়িতে দেখতে যাচ্ছে। সবার চোখেই পানি ঝরিয়ে ছাড়ছে তার মায়ের কান্না দেখে।

আরও জানা যায়, কয়েকদিন আগে বিএসএমইউতে একজন রোগিকে সফলভাবে অস্ত্রপচার করে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করা হয়েছে। এ নিউজটিই বকুলের বেঁচে থাকার আশার সঞ্চার করছে। কিন্তু তার পরিবারের পক্ষে এত বেশি চিকিৎসা ব্যায় ভার বহন করা সম্ভব নয়। এমতাবস্থায় এলাকা ও দেশবাসীর সহযোগিতা প্রয়োজন। বকুল সহায় সম্বল বিক্রি করে হলেও বাঁচতে চায়।

বকুলের মা বলেন, একমাত্র আল্লাহই পারেন আমার অসুস্থ সন্তানকে বাঁচাতে। তিনি চাইলে সবই সম্ভব। তিনি বিত্তবান সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করেন।

(নিজস্ব প্রতিবেদক, ঘাটাইলডটকম)/-