বঙ্গবন্ধু সেতুর ঋণ শোধ হবে ২০৩৪ সালে: সেতুমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩ হাজার ৭৪৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা। এর বিপরীতে এই সেতুর টোল বাবদ আদায় হয়েছে ৪ হাজার ৯৮৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। তাই নির্মাণ ব্যয়ের তুলনায় টোল থেকে ১ হাজার ২৪১ কোটি ৮৯ লাট টাকা বেশি আদায় হয়েছে।

আজ সোমবার (৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

সেতুর নির্মাণে উন্নয়ন সহযোগীদের কাছ থেকে নেওয়া ঋণ ২০৩৪ সালে পরিশোধ শেষ হবে বলেও মন্ত্রী জানান।

এ বিষয়ে প্রশ্ন করেন সরকারি দলের সাংসদ মামুনুর রশীদ কিরণ।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

মামুনুর রশীদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু সেতুর নির্মাণ ব্যয় হয়েছে ৩ হাজার ৭৪৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা। অপরদিকে এ পর্যন্ত (ডিসেম্বর ২০১৮) এ সেতু থেকে টোল আদায় রয়েছে ৪ হাজার ৯৮৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। এ অর্থ হতে সেতুর রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয়সহ সেতু কর্তৃপক্ষের অন্যান্য আনুষঙ্গিক ব্যয় নির্বাহের পর সেতু নির্বাহে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাসমূহের ঋণ পরিশোধ করা হয়ে থাকে। তবে, বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার দ্বিগুণেরও বেশি বেড়ে যাওয়ায় উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাসমূহ হতে গ্রহণ করা ঋণ সেতু থেকে আদায় করা টোলের মাধ্যমে ২০৩৪ সাল নাগাদ পরিশোধ করা শেষ হবে।

মন্ত্রী জানান, সেতু নির্মাণের পর প্রথম বছরে টোল থেকে আদায় হয়েছিল ৯৯ লাখ টাকা। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আদায় হয়েছে ৫৪৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা এবং চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে আদায় হয়েছে ২৮৪ কোটি ৮২ লাখ টাকা।

(প্রথমআলো, ঘাটাইলডটকম)/-

297total visits,1visits today