পানিতে ডুবে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে দেলদুয়ারে যুবকের মৃত্যু

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার বান্দাবাড়ী গ্রামে পানিতে ডুবে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে আবুশামা নামে এক যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে তার মৃত্যু হয়।

তিনি পাথরাইল ইউনিয়নের পাইজাদপুর গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে আবুশামা(৩৫) মাছ ধরতে বান্দাবাড়ী গ্রামের জলাশয়ে যান। এ সময় ওই গ্রামের মাইনুল হোসেনের ছেলে জহুরুল ইসলাম জরুর সেচ মেশিনের পাশে গেলে তিনি পানিতে ডুবে থাকা বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে পড়েন।

মাছ ধরতে যাওয়া অন্যরা আবুশামাকে জলাশয়ের ঘাসের সাথে ভেসে থাকতে দেখে বাড়িতে খবর দেয়। বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সকালে দেলদুয়ার থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

নিহত আবুশামার স্ত্রী বন্যা বেগম স্বামীর অকাল মৃত্যু মেনে নিতে পারছেনা। তিনি বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন। কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি জানান, ৩৫দিন বয়সী শিশুপুত্র ও ১২ বছরের কন্যাকে নিয়ে তিনি কীভাবে দিন কাটাবেন তা নিয়ে তিনি শঙ্কিত।

এদিকে, বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে আবুশামার মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দিতে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. শাহীন মিয়ার নেতৃত্বে একটি মহল অপতৎপরতা চালাচ্ছে।

পাথরাইল ইউপি চেয়ারম্যান হানিফুজ্জামান লিটন জানান, বিদ্যুৎ বিভাগের গাফিলতিতে তার পানিতে ডুবে রয়েছে। ওই বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে আবুশামার মৃত্যু হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ইতোপূর্বে একাধিকবার মোবাইল ফোনে জানালেও বিদ্যুৎ বিভাগ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেনি।

দেলদুয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম সায়েদুল হক ভূঁইয়া জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

টাঙ্গাইল বিউবো’র (বিক্রয় ও বিতরণ-২) নির্বাহী প্রকৌশলী শামীম আহমেদ জানান, সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করা হয়েছিল। পরে গ্রাহক নিজ উদ্যোগে পুনঃসংযোগ নেওয়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

সংযোগ বিচ্ছিন্ন করণ বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি জানান, আড়াই হাজার গ্রাহকের সবার খোঁজখবর রাখা তার পক্ষে সম্ভব নয়। সেজন্য গ্রাহকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার আবেদন আছে কী না তা তিনি জানাতে পারছেন না।

(দেলদুয়ার সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-