পল্লব বোসের তিনটি কবিতা

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার অধিবাসী পল্লব বোসের তিনটি কবিতা ঘাটাইল ডট কম পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল

এক.

সন্তান আজ পিতার কাছেও হয়ে গেছে যেনো ভয়,

জীবন অতি তুচ্ছ বিষয় যদি এভাবে হারাতে হয়।

প্রতিটি প্রাণীকে মৃত্যুর স্বাদ করতেই হবে গ্রহণ,

মৃত্যুর চেয়ে যন্ত্রনাদায়ক এমন দৃশ্যের দহন।

পুত্র মা কে রাস্তায় ফেলে চলে যায় যখন একা,

এমন দৃশ্য এই জগতে হয়নি কখনো দেখা।

মৃত্যুর পর আত্মীয়- স্বজন দিচ্ছেনা পরিচয়,

বেওয়ারিশ বলে দাফন দাহন কতটা বেদনাময়।

বুকভরা ব্যাথা অশ্রু শুকিয়ে হয়ে গেছে খরা নদী,

প্রতিশোধ নিবে এভাবে পৃথিবী বদলে না যাই যদি।

 

দুই.

কর্মহারা মানুষের মুখে বিষাদের কালো ছায়া,

পৃথিবীর এই কঠিন রূপে নেই যে কোনো মায়া।

সামাজিকতা লকডাউনে উধাও হয়ে গেছে,

ইচ্ছে হলেও যায় না যাওয়া প্রিয়জনের কাছে।

মহামারী আজ নিচ্ছে কেড়ে প্রিয়জনের মুখ,

এসব দৃশ্য দেখে মানুষ কেঁদে ভাসায় বুক।

আয়ের পথটা বন্ধ হয়ে জীবন যখন অচল,

কেউ জানেনা কখন হবে আয়ের চাকা সচল।

বুকের ভেতর কষ্ট চাপা মুখে নিয়ে হাসি,

বলছি তবু আছি ভালো তোমার পাশাপাশি।

 

তিন.

ছেলেবেলার সব স্মৃতির মেলা ভেসে আসে ক্ষণে ক্ষণে,

হারিয়ে যাওয়া প্রিয় মুখগুলো অতীতের দিকে টানে।

কৈশোর ছিল প্রাণচঞ্চল ছিলো না তো কোন বাঁধা,

বন্ধুরা মিলে জয় করেছি কত যে কঠিন ধাঁধা।

যৌবনে এসে আড্ডায় কত সময় করেছি পার,

চায়ের কাপে ঝড় তুলে শেষে কত যে হয়েছে শেয়ার।

একদিন যদি দেখা না হতো বুকে হতো হাহাকার,

কোথায় তোরা কেমন আছিস দেখা হবে তো আবার?

ফুটবল খেলা শেষ হলে পরে পুকুরে তে ঝাঁপাঝাপি,

বনভোজন এর সময় এলে করেছি কত লাফালাফি।

আত্মার সাথে আত্মা মিলে বিন্দু থেকে সিন্ধু,

সকল কিছুর উর্দ্ধে যে জন সেই তো হলো বন্ধু।

(স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম)/-