ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় লতিফ সিদ্দিকীর খালাস

0Shares

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় সাবেক ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী খালাস পেয়েছেন। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) মাগুরার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক মাহবুবা শারমীন এই রায় প্রদান করেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী আ্যাডভোকেট ওয়াসিকুর রহমান কল্লোল জানান, তার মক্কেল এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

মামলাটি দায়ের করেছিলেন মাগুরা সদর উপজেলার বগিয়া গ্রামের বাসিন্দা বিএনপি নেতা সৈয়দ রফিকুল ইসলাম তুষার। সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী মামলায় হাজির না হওয়ায় তার অনুপস্থিতিতে বিচার অনুষ্ঠিত হয়।

মামলায় বাদীর অভিযোগ ছিল, লতিফ সিদ্দিকী একজন মিথ্যাবাদী, ভণ্ড, প্রতারক, বাচাল প্রকৃতির লোক। তিনি গত ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে আমেরিকায় এক মত বিনিময় সভায় পবিত্র ইসলামের সর্বশ্রেষ্ঠ নবী, পবিত্র হজ ও তাবলিগ জামাত সম্পর্কে অবমাননাকর ও বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তার এ মন্তব্য ধৃষ্টতামূলক, কটুক্তিপূর্ণ। যাতে প্রবিত্র ইসলামের ধর্মীয় অনুভূতিতে চরমভাবে আঘাত করা হয়েছে। যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যে কারণে তিনি এ মামলা দায়ের করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) বগুড়ায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা একটি মামলায় লতিফ সিদ্দিকীর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠায় আদালত। বগুড়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র রায় জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর থেকে তিনি বগুরা কারাগারে রয়েছেন।

৬ আগস্ট ২০১৪ তারিখে দায়েরকরা মামলাটি আমলে নিয়ে আদালত লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে সমন জারি করে তাকে স্ব শরীরে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

(ইত্তেফাক, ঘাটাইলডটকম)/-