দেশকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে সাংবাদিকতা প্রয়োজন

দেশ ছেয়ে গেছে দুর্নীতিতে। যেদিকে তাকাই, সেদিকেই দুর্নীতির কালো ছায়া। দুর্নীতির ঘোর অন্ধকার কেটে কবে জাতি আলোর সন্ধান পাবে এটাও অনিশ্চিত।

তবুও চিল্লাই না। চিল্লাইয়া কি মার্কেট পাওয়া যাবে? সমাধান হবে ? অবশ্যই না।

জীবন নিয়ে শাহেদ সাবরিনার কান্ড দেখে ভাবলাম, সিংহ হয়ে ঘুমিয়ে থাকার চেয়ে কুকুরের মতো চিৎকারে লাভ না হলেও ক্ষতি হবে না। এজন্য লেখার আগ্রহ হলো।

দুর্নীতির কয়টা খবর আমরা পাই? যতোগুলো গণমাধ্যমে উঠে আসে তাতেই দম বন্ধ হয়ে যায়। দপ্তরে-দপ্তরে দুর্নীতি। দেশ এগুবে কিভাবে? মন্ত্রীর কালো বিড়াল থেকে ছাত্রনেতা। কর্মকর্তা থেকে কর্মচারী।

তৃণমুলে দেশের সবচেয়ে বৃহৎ সেবা কেন্দ্র ইউনিয়ন তথ্য কেন্দ্রে । এখানে রয়েছে সীমাহীন দুর্নীতি আর হয়রানী।

দুর্নীতি রোধে রয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। অথচ সেই দুর্নীতি দমন কমিশনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ। পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অহরহ দুর্নীতির অভিযোগ।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক এবং পুলিশের এক ডিআইজির মধ্যে ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ তদন্ত করে দুজনেরই দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছিলেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

কর্মকর্তারা কিভাবে দায়িত্ব পালন করছে? এদের কাজের জবাবদিহিতা কতোটুকু?

২০১২ সালে সোনালী ব্যাংকের সাথে হলমার্ককান্ডে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা জালিয়াতি। অথচ ২০১৩ সালের আগস্টে জামিন পান হলমার্কের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলাম।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে জমা রাখা সোনা শংকর ধাতু হয়ে যায়। দিনাজপুরের বড়পৃুকুরিয়ার কয়লার খনি থেকে দেড় লাখ টন কয়লা গায়েব হলো।

পাবনার রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র এলাকায় প্রকল্প কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের থাকার জন্য গ্রিন সিটি আবাসন পল্লীতে প্রতিটি বালিশ কিনতে খরচ দেখানো হলো ৫ হাজার ৯৫৭ টাকা। আর বালিশ ওঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ৭৬০ টাকা।

কৃষি খামার থেকে প্রায় ৩ কোটি টাকার ১২৯ মট্রিক টন ধানের বীজ পাচারের অভিযোগ। ঝিনাইদহের মহশেপুর উপজেলার দত্তনগর কৃষি খামারের তিন উপপরিচালকসহ চারজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। কর্মকর্তারা অতিরিক্ত বীজ উৎপাদনের পরিমাণ নিয়ম অনুযায়ী মজুত ও কাল্টিভেশন রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করেননি। এমনকি অতিরিক্ত কোনো বীজ পাঠানোর কোনো চালান বা তথ্য প্রমাণ খামারে রাখেননি ।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩৭ লাখ টাকা দিয়ে কেনা হয়েছে আইসোলেশন কক্ষের পর্দা । একটি আমেরিকার তৈরি ভিএসএ অনসাইড অক্সিজেন জেনারেটিং পাঁচ কোটি ২৭ লাখ টাকা।

খাগড়াছড়ির ৬-আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) ঘর মেরামতের কাজে দুই বান টিনের দাম ১৪ লাখ টাকা ।

এরপর ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে ৮৬ কোটি টাকা চাঁদা চাওয়ার অভিযোগটি স্পষ্ট করে দিয়েছে আমাদের পরবর্তী প্রজন্মও আমাদের দেখে ভুল পথে যাচ্ছে। এবার শাহেদের ঘটনায় আমরা মানুষের জীবন নিয়েও খেলতে দ্বিধা করিনা।

এখান থেকে বেড়িয়ে আসা জরুরি। সরকার যদি এখান থেকে দ্রুত বেড়িয়ে না আসতে পারে তাহলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হবে সরকারেই। এর সাথে সহযোগিতা করা প্রয়োজন সাংবাদিকদের। স্বচ্ছ সাংবাদিকতা দুর্নীতি দমন করতে পারে। স্বচ্ছ সাংবাদিকতার সামনে দুর্নীতি হতে পারে না। আর যদি সাংবাদিকতা বিকল হযে পড়ে ঘুরে দাড়ানোর আর কোন রাস্তা থাকে না।

(রেজাউল করিম, ঘাটাইল ডট কম)/-