দেলদুয়ার-টাঙ্গাইল সড়কের পাথরাইলে সীমাহীন দুর্ভোগ !

টাঙ্গাইল-দেলদুয়ার সড়কটি জেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক সড়ক। এটি জেলার সাথে দক্ষিণ টাঙ্গাইলের যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম।

টাঙ্গাইল থেকে দেলদুয়ার পর্যন্ত সড়কটি শেষ হয়নি। দেলদুয়ার থেকে পাকুল্যা হয়ে সড়কটি ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে মিসেছে। অন্যদিকে দেলদুয়ার থেকে পাকুটিয়া হয়ে সড়কটি মানিকগঞ্জ ও নাগরপুরের সাথে মিশেছে।

প্রতিদিন দেলদুয়ারসহ মির্জাপুর, নাগরপুর, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া ও ধামরাই উপজেলার লক্ষ মানুষ সড়কটি ব্যবহার করছে। এতো গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হওয়া সত্ত্বেও এক যুগেও সড়কটির স্থায়ী সংস্কার হয়নি। ফলে খানাখন্দে সড়কটি যান চলাচলের অনুপযোগি।

১২ কিঃ মিঃ সড়কের প্রসস্থতা বৃদ্ধি ও সংস্কার কাজ চলমান থাকলেও অপরিকল্পিত কাজ হচ্ছে পাথরাইল বাজারে। কাজের ধরন নিশ্চিত না হয়েই অপরিকল্পিতভাবে প্রায় ছয়মাস ধরে এই অংশের ইট তুলে কাজ বন্ধ রয়েছে।

ফলে অল্প বৃষ্টিতেই কাঁদা-পানিতে সয়লাভ হয়ে যায় এ অংশটুকু। এতে যান চলাচল অনুপযোগি হয়ে পড়ে।

সড়কটিতে প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। বার বার এই দুর্ভোগের কথা বললেও ভোগান্তি লাঘবে জনপ্রতিনিধি বা স্থানীয় প্রশাসনের কেউ আমলে নিচ্ছে না।

মাত্র দুইশ’ মিটার সড়কে অপরিকল্পিতভাবে ইট তুলে নিয়ে কাজে বিলম্ব হওয়ায় সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছে এ সড়কে চলাচলকারীরা।

পাথরাইল বাজার একটি ব্যস্ততম শিল্প এলাকা। টাঙ্গাইল শাড়ীর রাজধানী নামে পরিচিত। প্রতিনিয়ত দেশ-বিদেশের ব্যবসায়ীরা শাড়ী কিনতে আসে তাঁতপল্লীতে।

সড়কটির বেহাল দশায় ব্যবসায়ীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ে। এছাড়া পাথরাইলে বসে প্রতিদিনের বাজার। সারাদিনের এই বাজারের পন্য আনা-নেওয়া ও কেনা-বেচা করতে ব্যবসায়ীরাও পড়ছে ভোগান্তিতে। পুরো বাজারে পায়ে হাঁটার রাস্তাটাও নষ্ট হয়েছে।

সীমাহীন ভোগান্তির মধ্যে দিয়ে জায়গাটুকু পার হতে হয় পথচারীদের। এছাড়া ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা অস্থায়ী মালামাল নিয়েও দুপাশে বসতে পারছে না।

বাজারের এই দুইশ’ মিটার সড়ক ঢালাই হচ্ছে হবে বলে গত ছয়মাস ধরে এভাবে পড়ে আছে। ভোগান্তির শেষ কবে সেটাও জানা নেই এ অঞ্চলের মানুষের।

বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারের এই অল্প জায়গাটুকুর ইট তুলে নেওয়ায় চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন তারা। দুপাশের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর ভোগান্তি সীমাহীন।

এছাড়া পন্য আনা নেওয়ার জন্য মালবাহী ট্রাক বাজারে ডুকতে পারছে না।

খানখন্দে মালবাহী লরি উল্টেও অনেক ব্যবসায়ীর মালামাল ক্ষতি হয়েছে বলেও জানান তারা। খুব দ্রুত সংস্কারসহ উচু এবং দুপাশে ড্রেনেজ ব্যবস্থার উদ্যোগ নেবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এমনটাই মনে করছেন ব্যবসায়ীরা ।

যানচালকরা জানান, পুরো রাস্তাটা সংস্কার হলেও পাথরাইল বাজারের অল্প জায়গার বেহাল দশায় প্রতিনিয়ত অটো-রিকশা-সিএনজি উল্টে দুর্ঘটনা হচ্ছে। সড়কটিতে সব ধরণের যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।

যানবাহনেরও ক্ষতি হচ্ছে। দ্রুত সড়কটির সংস্কার দাবী করেন যানবাহন চালকরা।

দেলদুয়ার সড়ক বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, টাঙ্গাইল-দেলদুয়ার সড়কের ১২ কিলোমিটার অংশ উন্নয়নে ৪২ কোটি টাকার প্রকল্পের কাজ চলছে। সড়কটির বেশি অংশের কাজ শেষ হলেও বাজারের দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে বললেন শিগ্রই এর কাজ শুরু হবে।

টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান বলেন, পাথরাইল বাজার অংশটুকুতে কনক্রিট প্যাড (পাথর ঢালাই) করতে নতুন করে অনুমোদনের আবেদন করা হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ ধরা হবে। তবে দুর্ভোগ কমাতে সংশ্লিষ্ঠ ঠিকাদারকে অস্থায়ী ব্যস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

(রেজাউল করিম, ঘাটাইল ডট কম)/-