ঢাকা দুই সিটির ভোটে ৩৫ হাজার ইভিএম, টেকনিক্যাল সাপোর্টে সেনা সদস্য

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে ৩৫ হাজার ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচনী অনিয়ম দূর করতে সবকেন্দ্রে ইভিএমে ভোট হবে। ইভিএম নিয়ে কোন ধরণের সন্দেহ থাকলে তা পরীক্ষা করার জন্য বিএনপির প্রতি আহবান জানিয়েছে কমিশন।

এদিকে, ইভিএমে ভোট ব্যবস্থাপনার জন্য প্রতিকেন্দ্রে দুইজন সশস্ত্র বাহিনীর ৫ হাজার ২৮০ জন সদস্য মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী।

রবিবার (২৮ ডিসেম্বর) নির্বাচন ভবনের নিজ কার্যালয়ে তিনি বলেন, ইভিএমে প্রতি কেন্দ্রের টেকনিক্যাল সাপোর্টের জন্য দুজন করে সেনা সদস্য থাকবে। কোনো সমস্যা দেখা দিলে তাত্ক্ষণিক ভোট বন্ধ করে দেয়া হবে। ইভিএমে ভোটে অস্বচ্ছতার কিছু নাই। দুই সিটির ভোটের জন্য প্রয়োজনীয় ইভিএম ছাড়াও ৫০ শতাংশ বেশি ইভিএম প্রস্তুত রাখা হবে। ইভিএমে ভোটের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা থাকবে, স্বচ্ছতায় কোনো সমস্যা নেই।

অন্যদিকে, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের (এনআইডি) মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেছেন, উত্তর ও দক্ষিণ মিলে ২৬০০ কেন্দ্রে, এরমধ্যে ১৪ হাজার ৬শ বা তার বেশি ভোটকক্ষ থাকবে। বাস্তবতার নিরিখে এটি নির্ধারণ করা হবে। আমরা সিটি নির্বাচনের জন্য ইভিএম ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রয়েছি। দুই সিটির নির্বাচনে আমরা ৩৫ হাজার ইভিএম ব্যবহার করব। এজন্য প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসারদের চিহ্নিত করেছি। তাদের প্রশিক্ষণের জন্য ব্যবস্থা করেছি। ভোটারদের প্রশিক্ষিত করতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেছি, লিফলেট, বুকলেট ও টিভি বিজ্ঞাপন তৈরি করা হয়েছে।

(ইত্তেফাক, ঘাটাইলডটকম)/-