ঢাকায় যুবলীগ নেতার ক্যাসিনো থেকে আটক ১৪২

ঢাকা মতিঝিলের ফকিরাপুল এলাকায় যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার ‘ইয়াং ম্যান্স ক্লাবে’র ক্যাসিনোতে অভিযান চালিয়েছে বিপুল পরিমাণ অর্থসহ ১৪২ জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে র‌্যাব-৩ এর একটি দল অভিযান শুরু করে।

অভিযানে নেতৃত্বে দিচ্ছেন র‌্যাব সদর দপ্তর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম ও র‌্যাব-৩ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান।

সারওয়ার আলম বলেন, বিকেল থেকে ইয়াং ম্যান্স ক্লাবে অভিযান শুরু হয়। ১৪২ জনকে আটক করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ অর্থ। অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

সূত্রে জানা যায়, ইয়াং ম্যান্স ক্লাবের মালিক ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। আজ সন্ধ্যায় ঢাকার গুলশান ২ নম্বরে নিজ বাসা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গেল শনিবার আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় যুবলীগ নেতাদের নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশের পর আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনটির প্রভাবশালী নেতা খালেদকে ধরতে অভিযান চালাল র‌্যাব।

বৈঠকে উপস্থিত আওয়ামী লীগ নেতাদের ভাষ্য অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী যুবলীগের কয়েকজন নেতাকে নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তারা ‘শোভন-রাব্বানীর চেয়েও খারাপ’ বলে মন্তব্য করেন। সেসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যুবলীগের ঢাকা মহানগরের একজন নেতা চাঁদাবাজি করছে। আরেকজন এখন দিনের বেলায় প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে চলেন। এসব বন্ধ করতে হবে। যারা অস্ত্রবাজি করেন, যারা ক্যাডার পোষেন, তারা সাবধান হয়ে যান, এসব বন্ধ করুন। তা না হলে, যেভাবে জঙ্গি দমন করা হয়েছে, একইভাবে তাদেরকেও দমন করা হবে।

(আরটিভি, ঘাটাইলডটকম)/-

Views