টাঙ্গাইলে প্রথমবারের মতো চাষ হচ্ছে বেগুনী পাতার ধান

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারের কয়েকজন কৃষক প্রথমবারের মতো চাষ করেছেন বেগুনী পাতার ধান। এতে করে ব্যাপক সাড়া পড়েছে স্থানীয়দের মাঝে। চারপাশে সবুজ ধানের সমারোহ। মাঝ খানে বেগুনি রঙ্গের পাতার ধান ক্ষেত। যে কারো প্রথম দর্শনে ধান ভাবতে অবাক লাগবে। এমনই বেগুনী পাতার ধান চাষ করেছেন দেলদুয়ারের বারোপাখিয়া গ্রামের কয়েকজন কৃষক।

কৃষকরা জানান, যদি ফলন ভালো হয় তবে আগামীতে আরো বেশি জমিতে এই ধানের চাষ করবেন তারা।

আর কৃষি বিভাগ বলছে, এই ধানের আয়ুষ্কাল একটু কম। যদি ফলন আশানুরূপ হয় তবে অন্য কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়া হবে এই জাতের ধান।

কৃষকরা জানালেন, টিভিতে কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠানে বেগুনী রংয়ের ধান দেথে তাদের এ জাতের ধানের প্রতি আগ্রহ জাগে। স্থানীয় উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তার সহযোগীতায় বীজ এনে তারা এই ধান চাষ করেছেন। জমিতে বীজ রোপনের পর খুব বেশি পরিচর্যা করতে হয়নি। সারও লেগেছে কম। আশে পাশের অনেক মানুষ আসছেন তাদের ধান ক্ষেত দেখতে। ফলন বেশী পাওয়ার আশা তাদের।

জানা যায়, শুধু কি পাতার রঙ, ধানের চালের রঙও বেগুনী বা পার্পল হতে পারে। তাই কৃষকদের কাছে এখন পর্যন্ত এই ধানের পরিচিতি বেগুনী রঙের ধান বা পার্পল রাইস। সব থেকে বড় কথা এটা বিদেশী কোন জাত নয়, আমাদের দেশীয় ধানের জার্মপ্লাজম।

দ্রুত ফলন দেওয়ায় এই জাতের ধানে রোগ বা পোকা-মাকড়ের আক্রমণ হয় না। গাছ শক্ত হওয়ায় ঝড়-বৃষ্টিতেও হেলে পড়ার সম্ভাবনা কম থাকে। ফলন ঠিক থাকলে আগামীতে এই জাত অন্য কৃষকদের মাঝে বিতরণ করা হবে বলে জানিছেন স্থানীয় উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা রাজিবুল হাসান মল্লিক।

(দেলদুয়ার সংবাদদাতা, ঘাটাইল ডট কম)/-