টাঙ্গাইলে নদীর পাড়ে স্কুল দপ্তরীর লাশ

0Shares

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার সিলিমপুর ইউনিয়নের সুবর্ণতলী গ্রামের পাশে নদীর পাড় থেকে একজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম শফিকুল ইসলাম (৪০) বছর। নিহত শফিকুল সুবর্ণতলী গ্রামের ইনছান আলীর ছেলে। সে একই গ্রামের খাদিজা আবু বকর উচ্চ বিদ্যালয়ের দপ্তরী হিসেবে কর্মরত ছিল।

নিহতের পারিবারিক ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৮টা দিকে অচেনা কয়েকজন লোক শফিকুলকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। বাসা থেকে বের হওয়ার পর থেকেই তার মোবাইল বন্ধ হয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুজি করেও রাতে তার সন্ধান পাওয়া যায় নাই।

বুধবার সকালে এক কৃষক তার পাট ক্ষেতে কাজ করতে এসে প্রথম গামছা দিয়ে হাত বাঁধা লাশটি দেখতে পায়। পরে এলাকায় জানাজানি হলে তার পরিবার লাশটি শফিকুলের বলে সনাক্ত করে।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল মডেল থানার এস আই মানিক চন্দ্র দে জানান, সকালে জানতে পারি সদর উপজেলার সুবর্ণতলী গ্রামে একটি লাশ পরে আছে। খবর পেয়ে আমরা এসে দেখি লাশটি সুবর্ণতলীর পাশে হলেও দেলদুয়ার উপজেলার ব্রাক্ষনখোলা মৌজায় পরে রয়েছে। তাই আমরা দেলদুয়ার থানা পুলিশকে খবর দেই। তারা এসে মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা একে সাইদুল হক ভুইয়া জানান, টাঙ্গাইল থানার পুলিশ লাশটি আমাদের কাছে হস্তান্তর করলে আমরা দেলদুয়ার থানায় নিয়ে আসি। পরে খাদিজা আবু বক্কর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল হাই লাশটি শফিকুল ইসলামের বলে সনাক্ত করে। লাশটি ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাতে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান,এই ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোন মামলা দায়ের করা হয়নি।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-