জয়পুরহাটে সেপটিক ট্যাংকে নেমে ৬ জনের মৃত্যু

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে সেপটিক ট্যাংক পরিষ্কার করতে নেমে ৬ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আরও একজন আহত হয়ে নওগাঁ আধুনিক জেলা হাসপাতালে চিকিসাধীন রয়েছেন। বুধবার (৩১ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের জাফরপুর পলাশবাড়ী গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন- উপজেলার জাফরপুর পলাশবাড়ী গ্রামের বাড়িওয়ালা নিখিল চন্দ্রের ছেলে প্রিতম (১৯), প্রতিবেশি মৃত গোবিন্দ চন্দ্রের ছেলে গণেশ চন্দ্র (৪৫), রেজাউল করিমের ছেলে সজল (২০), সাথী হোসেনের ছেলে শিহাব (১৮), গণিপুর গ্রামের ছামছুল আকন্দের ছেলে শাহিন (৩০) এবং বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া উপজেলার খলিশ্বর গ্রামের টিটু মণ্ডলের ছেলে মুকুল হোসেন (২৫)।

পুলিশ জানায়, জাফরপুর পলাশবাড়ী গ্রামের নিখিল চন্দ্রের নির্মাণাধীন বাড়িতে রাজমিস্ত্রিরা গত কয়েকদিন আগে টয়লেটের সেপটিক ট্যাংক নির্মাণ করে ট্যাংকের মুখ বন্ধ করে চলে যায়। বুধবার সকালে ওই নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকের ছাদ ঢালাইয়ের সার্টার খুলতে একজন একজন করে ট্যাংকের ভেতরে নামে। এ সময় বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে ঘটনাস্থলেই ছয়জনের মারা যায় এবং আহত হয় একজন।

আক্কেলপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম আকন্দ বলেন, এসব দুর্ঘটনা এড়াতে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের জনসচেতনতামূলক প্রোগ্রাম হাতে নেওয়া উচিত।

আক্কেলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কিরণ কুমার রায় বলেন, মৃত ছয়জন শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হচ্ছে।

জয়পুরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল সদর) আব্দুস সালাম জানান, ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহগুলো দাফন করা হবে কি না সে বিষয়ে পুলিশ সুপারের নির্দেশ এখনো পাওয়া যায়নি।

(বাংলানিউজ, ঘাটাইলডটকম)/-