ঘাটাইলে সন্ত্রাসী হামলায় আহত মাদরাসা ছাত্রী

আজ বুধবার (১৪ আগষ্ট) দুপুরে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার পোড়াবাড়ি নামক স্থানে সাদিকা আক্তার (১৬) নামে আলিম প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। সন্ত্রাসীরা সাদিকার ঘারে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। আহত ওই ছাত্রী ঘাটাইল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত সাদিকা স্থানীয় পোড়াবাড়ি বাসষ্টেশন মসজিদের মুয়াজ্জিন সাইদুর রহমান খানের মেয়ে।

সাদিকার সাথে কথা বলে জানা যায়, আজ দুপুর বেলা ভাত খেয়ে বাড়ির পিছনের আঙ্গিনায় বাতাসে গিয়ে দাড়ালে চারজন বোরকা পড়া অজ্ঞাত লোক এসে পিছন থেকে আমার গায়ের উড়না খুলে মুখ পেঁচিয়ে ধরে ঘাড় বাঁকা করে পিছন থেকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে। আমি চিৎকার করে মাটিতে পড়ে গেলে আমাকে ফেলে তাড়া দৌড়ে পালিয়ে যায়।

তিনি ঘাটাইলডটকমকে জানান, আমার ঘাঁড় দিয়ে তখন রক্ত ঝড়তে থাকে। বাড়ির লোকজন দ্রুত দৌড়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক ঘাটাইল হাসপাতালে নিয়ে আসে। সে সময় আমি ভয়ে অজ্ঞান হয়ে গিয়েছিলাম।

এ ব্যাপারে ঘাটাইল হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার শুভময় পাল ঘাটাইলডটকমকে বলেন, সাদিকার ঘাড়ের পিছনের অংশে ৩/৪ টা সেলাই দেয়া হয়েছে। ভয় পেয়ে রোগী খিচতে শুরু করেছিল। বর্তমানে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় মহিলা ওয়ার্ডে তাকে ভর্তি রাখা হয়েছে। আমরা যথাযথ চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। বর্তমানে রোগী ভাল ও মোটামুটি সুস্থ আছেন।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন ও এলাকাবাসীর মনে অজানা ভয় কাজ করছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় মুহুর্তেই পুরো পোরাবাড়ী বাসষ্টেশন এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়।

সন্ত্রাসী এই ঘটনাটি ঠিক কি কারণে ঘটেছে সে বিষয়ে সুস্পষ্ট কোন ধারনা দিতে পারেনি সাদিকার পরিবার সদস্যরা ও এলাকাবাসী। তবে সবাই হতভম্ব হয়ে গেছে বলে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়।

(আতিক সরকার, ঘাটাইলডটকম)/-