ঘাটাইলে বাল্যবিয়ে বন্ধ, খাবার এতিমখানায়

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল এক মাদরাসা ছাত্রী। আজ ১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার উপজেলার ঘাটাইল সদর ইউনিয়নের বাইচাইল গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় সহায়তাকারীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানতে পারেন যে, উপজেলার ঘাটাইল ইউনিয়নের বাইচাইল গ্রামে আব্দুর রহমান তার নাবালিকা কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌসী (১৩) কে বিবাহ দিচ্ছেন। মেয়েটি স্থানীয় বাইচাইল ইসলামিয়া দাখিল মাদরসার নবম শ্রেনির ছাত্রী।

একই উপজেলার দেউলাবাড়ি ইউনিয়নের পশ্চিম পাকুটিয়া ( খালপাড়া) গ্রামের সাজু মিয়ার ছেলে শাকিলের সাথে মেয়েটির বিয়ের আয়োজন করা হয়।

বাইচাইল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোতাহের হোসেনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজনটি করা হয়। রান্না সহ বিয়ের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়। শুধু বর আসার অপেক্ষা। এমন সময় খবর পেয়ে পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হন উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার ও ইউপি চেয়ারম্যান হায়দর আলী। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে সটকে পরে আয়োজকরা।

এ সময় ইউএনও বিয়ের প্যান্ডেল ভেঙ্গে দেন এবং বরযাত্রীসহ বিয়ে বাড়ির আত্বীয় স্বজনের জন্য রান্না করা খাবার স্থানীয় এতিম খানায় পাঠিয়ে দেন। মেয়ে সাবালিকা না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবে না মর্মে কনের পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে মুচেলেকা নিয়ে বাল্যবিবাহ বন্ধ করে দেন।

পরে তিনি ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বাল্যবিবাহ আয়োজন ও সহায়তা করার জন্য মোতাহের হোসেনের কন্যা মৌসুমীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

(মাসুম মিয়া, ঘাটাইল ডট কম)/-

Print Friendly, PDF & Email