ঘাটাইলে পিপিই পড়ে ৮৫ কেজি মাংস নিয়ে চম্পট কথিত সেনা অফিসার!

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ৮৫ কেজি গরুর গোশত নিয়ে কৌশলে চম্পট দিয়েছেন কথিত এক সেনা অফিসার। কসাই মুক্তার আলী গোশতের দাম না পেয়ে প্রায় ৫০ হাজার টাকার ক্ষতির মুখে পড়েছেন। আজ শনিবার (১৬ মে) সকালে ঘাটাইল উপজেলার হামিদপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

মুক্তার আলীর বাড়ি ঘাটাইলের দিগর ইউনিয়নের কাশতলা গ্রামে।

কসাই মুক্তার আলী জানান, শনিবার সকালে মোটরসাইকেল নিয়ে সবুজ রঙের পিপিই পরা এক ব্যক্তি কসাইখানায় এসে নিজেকে বঙ্গবন্ধু সেতু সংলগ্ন ক্যান্টনমেন্টের একজন সেনা অফিসার হিসেবে পরিচয় দেন। তিনি জানান অসহায় মানুষকে ত্রাণ দেয়ার জন্য তাদের ক্যান্টনমেন্টে সেনাপ্রধান আসবেন। এ জন্য গরুর গোশত লাগবে। এই বলে দুটি বস্তায় ৮৫ কেজি গোশত ভরে তার মোটরসাইকেলের সঙ্গে বাঁধেন।

ফাঁকে ফাঁকে তিনি রাস্তায় গিয়ে যারা মুখে মাস্ক লাগাননি তাদের জিআই তার দিয়ে পিটিয়ে আতঙ্ক তৈরি করেন। এরপর সাদা কাগজে ভাউচার লেখিয়ে বলেন, চাপাতিসহ আমার সঙ্গে একজন লোক দেন। তিনি ক্যান্টনমেন্ট পর্যন্ত গিয়ে গোশত কেটে দিয়ে টাকা নিয়ে চলে আসবেন।

তখন কসাইখানা থেকে আনোয়ার হোসেন নামে একজনকে ওই ব্যক্তির মোটরসাইকেলে পাঠানো হয়। ওই সেনা অফিসার পরিচয় দেয়া ব্যক্তি কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডের কাছে পৌঁছে আনোয়ারকে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে দিয়ে বলেন, তুমি দাঁড়াও আমি মোটরসাইকেলে তেল তুলে নিয়ে আসি। এই বলে ওই কথিত সেনা অফিসার গোশতের মূল্য পরিশোধ না করেই উধাও হয়ে যান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার অজ্ঞন কুমার সরকার ঘাটাইল ডট কমকে বলেন,পুলিশকে বলেছি তদন্ত করে প্রতারক চক্রকে আইনের আওতায় আনা হবে।

(রাজু, ঘাটাইল ডট কম)/-