ঘাটাইলে পাওনা টাকার দাবিতে মামলা করায় বাদিকে পিটুনি!

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়ায় পাওনা টাকার দাবিতে আদালতে মামলা দায়ের করায় বাদি মো. রোকন তালুকদারকে নাজেহাল করা হয়েছে। মঙ্গলবার(১৯ মে) দুপুরে দেওপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। এ বিষয়ে মো. রোকন তালুকদার বাদি হয়ে ঘাটাইল থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

এলাকাবাসী জানায়, দেওপাড়া গ্রামের মো. রিপন মিয়ার স্ত্রী মোছা. জেসমিন আক্তারের (৩৫) নেতৃত্বে স্থানীয় পর্যায়ে একটি প্রতারকচক্র গড়ে ওঠেছে। ওই চক্রটি বিভিন্ন ধনাঢ্য ও ব্যবসায়ী ব্যক্তিদের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপন করে টাকা হাওলাত নিয়ে আত্মসাত করে থাকে। কেউ পাওনা টাকার চাপ দিলে উল্টো তাকেই মিথ্যা অভিযোগে মামলায় ফেলে হয়রানি করা হয়।

চক্রটির হোতা মোছা. জেসমিন আক্তার ইতোমধ্যে মো. রোকন তালুকদারের কাছ থেকে তিন লাখ, মোছা. সেলিনা বেগমের কাছ থেকে পাঁচ লাখ, খোকন সিকদারের কাছ থেকে ৮০ হাজার, খোদেজা বেগমের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা হাওলাত নিয়ে আত্মসাত করেছেন। পাওনাদাররনা টাকা ফেরত চাইলে তিনি তালবাহানা করেন এবং হুমকি প্রদান করেন।

এ নিয়ে স্থানীয় পর্যায়ে একাধিকবার গ্রাম্য সালিশও হয়েছে। বাধ্য হয়ে রোকন তালুকদার ও মোছা. সেলিনা বেগম পাওনা টাকার দাবিতে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়ের করায় মোছা. জেসমিন আক্তার সহ চক্রটি ক্ষুব্দ হয়ে তাদেরকে হেনস্তা করার সুযোগ খুজছে।

গত মঙ্গলবার(১৯ মে) দুপুরের দিকে ব্যবসায়ী মো. রোকন তালুকদার দেওপাড়া বাজারের একটি ওষুধের দোকানে বসে ছিলেন। এ সময় হঠাৎ গৃহবধূ মোছা. জেসমিন আক্তার এসে মো. রোকন তালুকদারকে প্রকাশ্যে বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটাতে থাকেন। আশপাশের লোকজন এসে রোকন তালুকদারকে উদ্ধার ও জেসমিন আক্তারকে নিবৃত করেন।

এ বিষয়ে মো. রোকন তালুকদার জানান, পাওনা টাকার জন্য মামলা করায় আচমকা ওই মহিলা এসে মারপিট করতে থাকায় তিনি হতভম্ভ হয়ে পড়েন। পরে তিনি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

দেওপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক জানান, মোছা. জেসমিন আক্তার নামীয় মহিলার নেতৃত্বে এলাকায় একটি অত্যাধুনিক প্রতারকচক্র মাথাচাড়া দিয়েছে।

ঘাটাইল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাকছুদুর রহমান জানান, অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

(স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম)/-