ঘাটাইলে গ্রেপ্তারকৃত দুই মাদরাসা শিক্ষকের আদালতে জবানবন্দি

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে দুই শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে হওয়া মামলায় গ্রেপ্তারকৃত দুই মাদরাসা শিক্ষক আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) টাঙ্গাইলের আদালত পরিদর্শক তানভীর আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তারকৃত দুই মাদরাসা শিক্ষক গোপালপুর উপজেলার শরিয়তপুর গ্রামের হেকম আলীর ছেলে রমিজুল (২২) ও ভুঞাপুর উপজেলার নিকরাইল গ্রামের মৃত তারা মিয়ার ছেলে খায়রুল (২২)। তারা দুজনেই ঐ মাদ্রসায় শিক্ষকতা করতেন।

তানভীর আহম্মেদ জানান, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুমন কর্মকার খায়রুলের জবানবন্দি রেকর্ড করেন এবং সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা হাসানাত রমিজুলের জবানবন্দি রেকর্ড করেন। পরে আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

ঘাটাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, আজ বৃহস্পতিবার মাদরাসার ১০ এবং ১২ বছর বয়সী ওই দুই শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের (বলাৎকার) অভিযোগে মামলার পর তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ধর্ষণের শিকার এক শিক্ষার্থীর বাবা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ওই মামলা করেন।

বলাৎকারের শিকার এক ছাত্রের অভিভাবক জানান, ঘটনার শিকার আমার ছেলে ভয়ে মাদরাসা থেকে পালিয়ে নানির বাসায় আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে আমি ও আমার স্ত্রী সেখানে যাই। কারণ জানতে চাইলে ছেলে বলে আমি আর মাদরাসায় যাবোনা। হুজুর আমার সাথে খারাপ কাজ করেছে। আমাকে মাদরাসায় পাঠালে ছাদ থেকে লাফ দিয়ে মরে যাব।

(স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম)/-
Print Friendly, PDF & Email