‘ঘাটাইলের সাগরদীঘিতে ডাকাতি, লুটপাট’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

অনলাইন নিউজ পোর্টাল ঘাটাইলডটকমে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ‘ঘাটাইলে ডাকাতি, দিনেদুপুরে ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইলের সাগরদীঘি ইউনিয়নের শাজাহান শিকদার (নয়া)। তিনি ঘাটাইলডটকমের কাছে এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) একটি লিখিত প্রতিবাদলিপি পাঠিয়েছেন।

লিখিত প্রতিবাদলিপি এবং শাহজাহান শিকদার থেকে জানা যায়, উপজেলার সাগরদীঘি এলাকার প্রতিবেশী হায়দার আলীর সাথে আমাদের জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছে। এ বিষয়ে একাধিকবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে শালিসি বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও বিষয়টি নিয়ে আদৌ কোন সমাধান পাওয়া যায়নি হায়দার আলীর অনাগ্রহর কারণে। এমতবস্থায় প্রতিপক্ষ গত ১৯ ফেব্রুয়ারি একটি সাজানো ঘটনা নিয়ে আমাদের পরিবার সদস্যদের থেকে ১০ জনকে আসামি করে সাগরদীঘি পুলিশ ফাঁড়িতে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু সেদিন উক্ত ঘটনার সময় হায়দার আলীর লোকজনের আক্রমণে আমাদেরই চারজন আহত হয়েছেন, তারা ঘাটাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা শেষে বাড়িতে ফিরে গিয়েছেন। এ বিষয়ে আমি ছয় জনের নাম উল্লেখ সহকারে একটি লিখিত অভিযোগও ঘাটাইল থানায় দায়ের করেছি।

শাহজাহান শিকদার জানান, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি সাগরদীঘি জালালপুর বাজারে অবস্থিত হায়দার আলী মালিকানাধীন ‘একতা ফুড প্রোডাক্ট’ এর গোডাউনে ডাকাতি বা লুটপাটের মতো কোন ঘটনাই ঘটেনি। আমাদের সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন ও জমি সংক্রান্ত সমস্যা ভিন্নখাতে প্রবাহের স্বার্থে ওই অভিযোগ দায়ের করেছেন হায়দার আলী।

শাহজাহান শিকদারের দাবি করা মতে, হায়দার আলী ও তার লোকজনেরাই ‘একতা ফুড প্রোডাক্ট’ গোডাউনের মালামাল নিজেরা অন্যত্র সরিয়ে আমাদের অভিযুক্ত করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে ঘাটাইলডটকম প্রতিবেদকের বক্তব্য হচ্ছে, ঘাটাইলডটকম সংবাদ প্রকাশে আরও বেশী অনুসন্ধানী ও পেশাদারিত্ব ভূমিকা রাখতে সচেষ্ট থাকবে। উক্ত প্রতিবেদন হায়দার আলীর দায়ের করা লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতেই হয়েছে।

(নিজস্ব প্রতিবেদক, ঘাটাইলডটকম)/-