গোপালপুরে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন না করে শতবর্ষ উদযাপন

টাঙ্গাইলের গোপালপুর সূতী ভিএম সরকারি বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন না করে প্রতিষ্ঠানের শতবর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠান পালন করা হয়েছে। তবে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবী প্রতিষ্ঠানের শতবর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন নির্ধারিত দিনে না করে দুইদিন আগেই মৌখিকভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।

জানা গেছে, সারাদেশে একযোগে গত শনিবার (২৫ জানুয়ারি) মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদরাসাগুলোতে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গোপালপুর সূতী ভিএম পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গত শনিবার স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। ওইদিন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠানের শতবর্ষ উদযাপন পালন করেছে।

শতবর্ষ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান, স্থানীয় সাংসদ তানভীর হাসান ছোট মনির, সাংসদ জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের), জেলা প্রশাসক মো: শহীদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইউনুছ ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু প্রমুখ।

এদিকে বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

গোপালপুর সূতী ভিএম পাইলট মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আতিকুর রহমান বলেন, বিদ্যালয়ের শতবর্ষ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন নির্ধারিত দিনে না হয়ে দুইদিন আগে গত বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) শিক্ষার্থীদের মধ্যে সমঝোতার মাধ্যমে হয়েছে। এরআগে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রত্যেক ক্লাশে মনোননয়ন পত্র বিতরণ করা হয়েছে। পরে প্রত্যেক ক্লাশে কোন প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী না থাকায় শিক্ষার্থীরা মিলিত হয়ে প্রার্থী নির্বাচিত করেছে।

শিক্ষা কর্মকর্তার সাথে পরামর্শক্রমে সব ধরনের নিয়ম অনুসরণ করে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে।

গোপালপুর মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোস্তফা কবির জানান, বিদ্যালয়ে শতবর্ষ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে বড় মাপের অতিথিরা আসবে তাই স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচনের প্রক্রিয়া দুইদিন আগেই শেষ করেছে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। তবে নির্বাচন হয়েছে কিনা সেটা জানা নেই।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিকাশ বিশ্বাস জানান, যেহেতু বিদ্যালয়ে বড় একটি প্রোগ্রাম ছিল। সেখানে সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ছাড়াও মন্ত্রীরা উপস্থিত ছিলেন সুতরাং ওই দিনে নির্বাচন করা যাবে না। তাই হয়তো আগে করেছে নির্বাচন। তবে বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন হয়েছে কিনা সেটা জানা নেই।

(গোপালপুর সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-