গাজীপুরে লাউ নিয়ে কৃষক হত্যায় ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার ইশ্বরপুর এলাকায় কৃষক বিল্লাল হোসেন ওরফে বিলু হত্যা মামলায় ১৩ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুরে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক  ফজলে এলাহী ভূইয়া এই আদেশ দেন। ১৯৯৫ সালের ৭ ডিসেম্বর কদু (লাউ) চুরি নিয়ে বিল্লাল হোসেনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন আসামিরা।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার ইশ্বরপুর গ্রামের ফালান, ছাদির আলী, কাদির, কালাম, বাজিত, আজিজ, ওসমান, আব্দুস ছামাদ, হুমায়ুন, রুস্তম, ফারুক, মানিক এবং আলম।

আসামিদের মধ্যে কাদির, কালাম, বাজিত, ওসমান, হুমায়ুন এবং রুস্তম (ছয় জন) রায় ঘোষণার সময় আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। অপর আসামিরা (সাত জন) পলাতক রয়েছেন।

গাজীপুর আদালতের সরকারি কৌশলী (পিপি) হারিছ উদ্দিন আহম্মদ জানান, কালীগঞ্জের ইশ্বরপুর গ্রামে ১৯৯৫ সালের ৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ইশ্বরপুর বাজারে কদু (লাউ) চুরি নিয়ে কৃষক বিল্লাল হোসেন ও তার কর্মচারী জাকারিয়ার সঙ্গে আসামি কাদির ও ছাদিরের কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মামলার অভিযুক্ত আসামিরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে বিল্লাল হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করেন। তখন বিল্লালের বয়স ছিল ৪৫ বছর।

হারিছ উদ্দিন আহম্মদ আরও জানান, হত্যার ঘটনায় বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী রহিমা খাতুন বাদী হয়ে ১৩ জনকে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলাটি প্রথমে ওই থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মহাদেব বর্ধন তদন্ত করেন। পরে এসআই আবদুস শহীদ মামলাটি পুনরায় তদন্ত করে ১৩ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পিপি জানান, দীর্ঘ শুনানি ও স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ দুপুরে মামলার রায় ঘোষণা করেন আদালত। রায়ে ১৩ জন আসামিকেই মৃত্যুদণ্ড এবং প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ সোমবার দুপুরে এ মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সন্তোষ প্রকাশ করেন।

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইল.কম)/-