কালিহাতী মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে তালা, জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি ব্যাহত

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে তালা দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে গত ১৫ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে কর্মসূচি পালন করতে পারেননি স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা। বিষয়টি নিয়ে পুরো উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। তালা দেয়ার ঘটনাটি অবগত নন বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

মুক্তিযোদ্ধারা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি পালন করার জন্য মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে যান। কমপ্লেক্সের গেটে ভেতর থেকে কে বা কারা তালা লাগিয়ে দেয়। তালার কারণে মুক্তিযোদ্ধারা কমপ্লেক্সের ভেতরে প্রবেশ এবং কোনো কর্মসূচি পালন করতে পারেননি।

বিষয়টি উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা ও সাধারণ মানুষের মধ্যে জানাজানি হলে তারা তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সেইসাথে ঘটনার সাথে সম্পৃক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

কালিহাতী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও উপজেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান মজনু ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সকালে জাতীয় শোক দিবসে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি পালন করতে আমরা কমপ্লেক্সে প্রবেশ করতে গিয়ে দেখি গেট তালাবদ্ধ।

তিনি জানান, পরস্পর শুনেছি স্থানীয় শ্রমিক লীগের এক নেতার নেতৃত্বে এ তালা লাগানো হয়েছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই। পরে তাকে বার বার ফোন দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে মুক্তিযোদ্ধারা শোক দিবসে কর্মসূচি পালন করতে না পেরে অত্যন্ত মর্মাহত। আওয়ামী লীগের শাসনামলে এটা মেনে নেয়া যায় না। আমরা অপরাধীদের বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার অমিত দেবনাথ বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে তালা দেয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে তালা দেয়ার ঘটনাটি কালিহাতীর ইউএনও’র সাথে কথা বলে জানাতে পারব।

(কালিহাতী সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-