কালিহাতীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধরের ঘটনায় ৪ জন কারাগারে

টাঙ্গাইলের কালিহাতীর পাইকড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের উপর হামলার ঘটনায় ৪ জন আসামীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আসামীদের জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ্ আল মাসুম তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আসামীরা হলো- উপজেলার কামান্নার মন্টু ভূইয়ার ছেলে এমডি ভূইয়া, গোলড়া গ্রামের ফজু মিয়ার ছেলে কাউছার, বলিখন্ড গ্রামের জামাল মিয়ার ছেলে সেলিম রেজা এবং হাসড়া গ্রামের ইব্রাহীম মিয়ার ছেলে হাবিব।

টাঙ্গাইলের আদালত পরিদর্শক তানভীর আহমেদ বলেন, আসামীরা আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। পরে জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

হামলার শিকার দুইবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আজাদ হোসেন বলেন, অন্যায়ভাবে যারা আমাদের উপর হামলা করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। যাতে ভবিষ্যতে যেনো কারো ইন্ধনে এ ধরণের জঘন্য অপরাধ করার সাহস না পায়।

উল্লেখ্য, কালিহাতীর গোপালদিঘী কেপি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্ণিং বডির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বালিয়াটা বাজারে চেয়ারম্যান আজাদ হোসেনের উপর হামলায় হয়। হামলায় চেয়ারম্যান ছাড়াও আরো ৫ জন গুরুতর আহত হন। পরে তিনি বাদি হয়ে কালিহাতী থানায় ১৪ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ফলে বিদ্যালয়ের গভর্নিং বডির নির্বাচন (২২ ফেব্রুয়ারি) হওয়ার কথা থাকলেও তা স্থগিত করে কর্তৃপক্ষ।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-