করোনা আতঙ্কে রোগী শূন্য ভুঞাপুর হাসপাতাল!

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস আতঙ্কে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর ৫০ শয্যা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে রোগী শূন্য হয়ে পড়েছে। ফলে হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসকরাও স্বস্তিতে অলস সময় কাটাচ্ছে। তবে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রতিনিয়ত নিরলসভাবে দিনভর জনসচেতনতা প্রচারণা করে যাচ্ছে।

সরেজমিনে বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকাল ১১ টায় হাসপাতালে ব্রেডগুলোতে রোগী শূন্যের এমনি চিত্র দেখা গেছে। এরআগে গেল মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) সকাল থেকেই হাসপাতাল ছাড়তে শুরু করে রোগীরা। এদিকে, ইমার্জেন্সী ওযার্ডগুলোতেও রোগীও তেমন চোখে পড়েনি।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, গেল কয়েক সপ্তাহ ধরেই করোনা ভাইরাস আতঙ্কে এ উপজেলার জনসাধারনের মাঝেও এর প্রভাব পড়েছে। এতে ভয়ে রোগীরাও চিকিৎসা নেয়ার জন্য কম আসছে। যারা ভর্তি ছিল তারাও বাড়িতে চলে গেছে।

চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর স্বজনরা বলছে- করোনা ভাইরাসের কারণে হাসপাতালে রোগী নিয়ে গেলেও তেমন চিকিৎসা মেলে না। রোগীর অবস্থা বেশী গুরুত্বর হলে ভর্তি করেই টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করে দেয়া হয়।

হাসপাতাল থেকে ওষুধ পায় কি না জানতে চাইলে রোগীরা জানান, শুধু প্রেসকিপশন করে কিছু সর্দি ও ঠান্ডা-জ্বরের ওষুধ হাতে ধরিয়ে দিয়ে বাহির থেকে কিনতে বলে।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মহীউদ্দিনের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে রোগী কম আসছে হাসপাতালে। কিন্তু রোগী শূন্য হাসপাতাল এব্যাপারে আমি জানি না। জেনে বলতে হবে। এদিকে, আজ বৃহস্পতিবার নতুন করে বেশ কয়েকজন রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসছে। তাদের মধ্য ৩ থেকে ৪ জন রোগী ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন- জনসচেতনা বৃদ্ধির লক্ষ্যে করোনা প্রতিরোধে লিফলেট ও মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। জনসচেতনা প্রচারণা অব্যাহত রয়েছে।

(ফরমান শেখ, ঘাটাইল ডট কম)/-