করোনায় নিস্তব্ধ ঘাটাইল

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে আজ বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) থেকে শুরু হয়েছে ১০ দিনের বাধ্যতামূলক ছুটি। সব ধরনের গণপরিবহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা এবং দোকানপাট বন্ধ থাকায় এখন কার্যত নিস্তব্ধ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল।

সরকারি নির্দেশনা মেনে স্বল্প ও দূর পাল্লার কোন যাত্রীবাহী বাস ঘাটাইলে চলাচল করছে না। তবে আজ বৃহস্পতিবারও রাস্তায় কিছু গণ পরিবহণ দেখা যায়। এদিকে ঘাটাইলের মেইন রোড, বাজার রোডের সকল দোকানপাট বন্ধ রয়েছে।

গণপরিবহনে নিষেধাজ্ঞা থাকায় বুধবার থেকেই সড়কে গণপরিবহন কম দেখা যায়। অফিসফেরত মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়। লোকজনও খুব কম দেখা গেছে সড়কে। তারা বাসা বাড়িতেই অবস্থান নিয়ে আছেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকালে ঘাটাইলের সড়কে দু-চারটি প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকল দেখা গেছে। জরুরি সেবার যান ও মালবাহী ট্রাকও খুব একটা দেখা যায়নি। বিভিন্ন স্পটে আইনশৃংখলাবাহিনী সড়কে অবস্থান নিয়ে আছেন। মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার দেখলেই থামাচ্ছেন ‍পুলিশ সদস্যরা। জানতে চাচ্ছেন কেন বের হয়েছেন, কোথায় যাচ্ছেন?

সামাজিক দূরত্ব তদারকিতে সক্রিয় রয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর টহল দল ও আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা।

২৪ মার্চ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গণপরিবহন বন্ধের নির্দেশনায় এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, ওষুধ, জরুরি সেবা, জ্বালানি, পচনশীল পণ্য পরিবহন-এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। পণ্যবাহী যানবাহনে কোনো যাত্রী পরিবহণ করা যাবে না। আগামী ৪ এপ্রিল পর্যন্ত এ নিদের্শনা অব্যাহত থাকবে।

এছাড়া ঘাটাইল পৌরসভা, প্রশাসন এবং বাজার সমিতির পক্ষ থেকে সকল দোকানপাট, বাজার, যান চলাচল বন্ধ রাখার জন্য ব্যাপক প্রচারনা চালানো হয়।

পথচারী কামরুল ইসলাম ঘাটাইল ডট কমকে জানান, এমন নিস্তব্ধ ঘাটাইল অনেক দিন পর দেখলাম। মানুষ যে অনেক সচেতন হয়েছে সেটি প্রমানিত। আমাদের আরও সতর্ক থেকে ঘরেই সকলের অবস্থান করা জরুরি।

(স্টাফ রিপোর্টার, ঘাটাইল ডট কম)/-