কমছে যমুনার পানি, টাঙ্গাইলের দুই উপজেলায় তীব্র ভাঙন

যমুনা নদীর পানি কমে যাওয়ায় আবারও টাঙ্গাইলের দুই উপজেলার তীব্র ভাঙন দেখা দিয়েছে। আর এ ঘটনায় বাধ নির্মাণের জোর দাবি জানিয়েছেন ভাঙন কবলিতরা।  নদী ভাঙনের ফলে হুমকির মুখে রয়েছে, টাঙ্গাইলের ভূঁঞাপুর উপজেলার গবিন্দাসী, কষ্টাপাড়া, কুটিবয়রা এবং টাঙ্গাইল সদর উপজেলার কাকুয়াসহ বেশ কয়েকটি এলাকা।

একদিকে বন্যায় কৃষি জমির সব ফসল বানের জলে ভেসে গেছে; অন্যদিকে নতুন করে আবারও নদী ভাঙন। ফলে চরম বিপাকে পরেছে ওইসব এলাকার বাসিন্দারা।

ভূঁঞাপুর উপজেলার কষ্টাপাড়া গ্রামের মোমেনা বেগম জানান, সম্প্রতি বন্যার পূর্বে কষ্টাপাড়া এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দেয়। ফলে তার বাড়ির আশপাশের অনেক বাড়ি ঘর ভেঙে যায়। তার বাড়িটি আংশিক ভেঙে যাওয়ার পরেই বন্যায় প্লাবিত হয়ে ভাঙন বন্ধ হয়। এতে আবারও আশাজাগে তার মনে। স্বামীর ভিটা বাড়ি হয়তো রক্ষা করা যাবে। কিন্তু শেষ রক্ষা করা গেলোনা। পানি কমে যাওয়ার সাথে সাথেই আবারও তীব্র স্রোতে তার বাড়িটিও ভেঙে গেলো।

ইতিমধ্যেই বন্যার কয়েকদিন পূর্বে যমুনার তীব্র ভাঙনের শিকার হয়ে প্রায় ৩ শতাধিক ঘরবাড়ি নদীতে বিলিন হয়েছে। এ সব এলাকার লোকজন অনেকেই এখনও খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। আবারও নতুন নতুন ঘরবাড়ি নদীতে বিলিন হয়ে সর্বশান্ত হয়ে পরছে তারা।

এসব ভাঙন কবলিত মানুষ ঘর বাড়ি ও ফসলি জমি হারিয়ে অর্থ কষ্টে মানবেতর জীবন যাপন করলেও তাদের সাহায্যের জন্য এখনও কেউ এগিয়ে আসেনি। আবারও কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করছেন তারা।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-