এলেঙ্গায় সড়ক সংস্কার, যানজট ১০ কিলোমিটার

ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ৩০০ মিটার সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরু হয়েছে। ফলে ওই এলাকায় এক লেনে যানবাহন পারাপার হচ্ছে। এতে করে এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডের দুই দিকে অন্তত ১০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে দীর্ঘ গাড়ির সারি প্রায় আট কিলোমিটার দূরে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বিক্রমহাটি পর্যন্ত এসে ঠেকেছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকেও পাঁচ কিলোমিটারের বেশি যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

সদর উপজেলার রসুলপুর এলাকায় ট্রাকচালক খোরশেদ আলম জানান, টাঙ্গাইল শহর বাইপাসের রাবনা মোড় পার হওয়ার পর থেকেই যানজটে পড়তে হচ্ছে। ১০ মিনিটের রাস্তা পার হতে এক ঘণ্টার বেশি সময় লাগছে বলেও জানান তিনি।

ট্রাফিক পুলিশ বিভাগ জানায়, এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় কিছু সময় ঢাকার দিকে গাড়ি চলাচলের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। আবার কিছু সময় ঢাকার দিক বন্ধ রেখে পার করা হচ্ছে উত্তরবঙ্গগামী যানবাহন। ফলে দুই দিকেই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ড থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর দিকে এবং ঢাকার উভয় দিকেই অন্তত ১০ কিলোমিটার যানজট লেগে থাকছে। ১০ মিনিটের সড়ক পার হতে এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লাগছে।

টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আমিমুল এহসান বলেন, রাস্তার দুপাশে দুই লেন সম্প্রসারণ করা হচ্ছে। আগামী ১৫–২০ দিনের মধ্যে এই দুই লেনের নির্মাণকাজ শেষ হবে। পরে মাঝের দুই লেন সড়কের উন্নয়ন করা হবে। সড়ক নির্মাণের কারণে কিছুটা যানজট হলেও নির্মাণকাজ শেষ হলে এলেঙ্গাতে আর যানজট হবে না।

টাঙ্গাইল ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) রফিকুল ইসলাম সরকার বলেন, এলেঙ্গার যানজট নিরসনের জন্য দুজন ট্রাফিক পরিদর্শক, আটজন সার্জেন্ট, ছয়জন সহকারী ট্রাফিক সার্জেন্ট ও আটজন কনস্টেবল ওই এলাকায় দায়িত্ব পালন করছেন। পাশাপাশি হাইওয়ে পুলিশও রয়েছে। কিন্তু এক লেনে যানবাহন পারাপারের কারণে এই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

(টাঙ্গাইল সংবাদদাতা, ঘাটাইলডটকম)/-