ইরাকে কারবালায় আশুরার তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে নিহত ৩১

0Shares

ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আল জাজিরা ও আনাদলু আরবির খবরে বলা হয়, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ কারবালায় আশুরার তাজিয়া মিছিলে অস্থায়ী একটি দেয়াল ভেঙে পড়ে হুড়োহুড়ি সৃষ্টি হলে দম আটকে ও পদদলিত হয়ে ৩১ জন নিহত হয়েছেন। পবিত্র ধর্মীয় শহর কারবালায় তাজিয়া মিছিলে আজ মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) পবিত্র আশুরা উদযাপনের সময় এ ঘটনায় আরও শতাধিক আহত হয়েছেন বলে নিরাপত্তাকর্মীরা এপিকে জানিয়েছে।

কর্মকর্তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে কথা বলেন। কারণ তাদের সরকারি বিবৃতি দেয়ার ক্ষমতা ছিল না।

প্রতি বছর আশুরার দিনে কারবালায় হাজির হন কয়েক লাখ শিয়া ভক্ত। তলোয়ার দিয়ে নবীন ভক্তরা নিজের কপাল চিরে রক্তাক্ত হন। যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে মঙ্গলবার সারা বিশ্বে পালিত হয় পবিত্র আশুরা। সারাবিশ্বের মুসলমানদের কাছে আশুরার দিনটি বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যময়।

ইসলাম ধর্মমতে, মহান আল্লাহ এই দিনে পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং এই দিনেই পৃথিবী ধ্বংস হবে।

ইসলামের ইতিহাসে বিষাদময় কারবালাসহ নানা ঘটনার স্মরণে আরবি সনের হিজরি বছরের প্রথম মাস মহররমের ১০ তারিখ পবিত্র আশুরা পালিত হয়।

আশুরার দিন আল্লাহ পৃথিবীর প্রথম মানব হযরত আদমকে (আ.) সৃষ্টি করেছেন। এই দিনে আল্লাহ নবীদেরকে স্ব স্ব শত্রুর হাত থেকে আশ্রয় প্রদান করেছেন। এই দিন হযরত নুহ (আ.) এর প্লাবন শেষ হয় এবং নুহ (আ.) এর জাহাজ তুরস্কের ‘জুদি’ নামক পর্বতে গিয়ে থামে।

আশুরার দিন হযরত ইব্রাহিম (আ.) জালিম বাদশাহ নমরুদের অগ্নিকুণ্ড থেকে নিরাপদে মুক্তি পেয়েছিলেন। এই দিন হযরত ইউনুস (আ.) মাছের পেট থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন। আশুরার দিনে হযরত আইয়ুব (আ.) দুরারোগ্য ব্যাধি থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন।

আশুরার দিন হযরত সুলাইমান (আ.) তার হারানো রাজত্ব ফিরে পান। এইদিনে হযরত ইয়াকুব (আ.) হারানো ছেলে হযরত ইউসুফকে (আ.) ৪০ বছর পর ফিরে পেয়েছিলেন। এইদিনে হযরত ঈসা (আ.) জন্মগ্রহণ করেন এবং এইদিনেই তাকে দুনিয়া থেকে আকাশে উঠিয়ে নেয়া হয়।

সর্বশেষ ৬৮০ খ্রিষ্টাব্দে এই দিনে ফোরাত নদীর তীরে ঐতিহাসিক কারবালা প্রান্তরে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসেন (রা.) সপরিবারে নির্মমভাবে শাহাদাত বরণ করেন।

(অনলাইন ডেস্ক, ঘাটাইলডটকম)/-