সীমান্ত খুলে দেয়ায় সৌদিকে স্বাগত জানিয়েছে কাতার

হজ যাত্রীদের জন্য দু’দেশের সীমান্ত পুনরায় খুলে দেওয়ার সৌদি আরবের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। রিয়াদ রাজনৈতিক কারণে ধর্মীয় স্বাধীনতায় বাধ সাধলেও হজ্ব যাত্রীদের জন্য আবার রাজনৈতিক কারণেই সীমান্ত খুলে দেয়ার এই সিদ্ধান্তকে কাতার সরকার স্বাগত জানিয়েছে। কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন আব্দুল্লাহমান আল-তানি স্টকহোমে এক সংবাদ সম্মেলনে আরো বলেন, তার দেশ সৌদি সিদ্ধান্তে ইতিবাচক সাড়া দিবে। (এএফপি)।

কাতারের হজযাত্রীদের কথা বিবেচনা করে পুনরায় কাতারের সীমান্ত খুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন সৌদি বাদশাহ সালমান। বৃহস্পতিবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানিয়েছে। সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, ‘সৌদি আরবের ক্ষমতাশালী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান দোহা থেকে আসা দূতকে স্বাগত জানিয়ে সীমান্ত খুলে দেয়ার ঘোষণা দেন।’

এমনকি কাতারের সকল হজযাত্রীকে বাদশাহ তার নিজের খরচে সৌদি আরবে নিয়ে আসার জন্য দোহা বিমানবন্দরে সৌদি এয়ারলাইন্সের বিমান পাঠানোরও নির্দেশ দিয়েছেন বলে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। ‘বাদশাহ হজ পালনের জন্য সালওয়া সীমান্ত ক্রসিং দিয়ে কাতারের হজযাত্রীদের সৌদি আরবে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছেন। এছাড়া ইচ্ছে করলে কাতারের হজযাত্রীরা হজ পালনের জন্য ইলেকট্রনিক অনুমোদন ছাড়াই সৌদি আরবে ঢুকতে পারবেন।’

 

বিশ্লেষকরা বলছেন, উভয় দেশের মধ্যে চলমান কূটনৈতিক সংকটের বিপরীতে পুনরায় সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে এটি প্রাথমিক সবুজ সংকেত। কেননা সংকট শুরু হওয়ার পর দু’দেশের সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের মধ্যেও এটাই প্রথম যোগাযোগ।

 

এর আগে সন্ত্রাসবাদে মদদ দেয়ার অভিযোগে গত ৫ জুন সৌদি আরবের পাশাপাশি মিশর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ ছয়টি দেশ কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করে। এরপর সৌদি আরব সালওয়া সীমান্ত ক্রসিংটিও বন্ধ করে দেয়। এই পরিস্থিতিকে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সঙ্কট হিসেবেই দেখা হয়।

 

(ঘাটাইল.কম)/-

122total visits,1visits today

Leave a Reply