সখীপুরে বেহাল সড়কে ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

টাঙ্গাইলের সখীপুরের জনবহুল এলাকার একটি সড়কে ধানের চারা রোপণ করে সড়ক পাকা না করায় প্রতিবাদ জানিয়েছেন এলাকাবাসী। উপজেলার কচুয়া-সাড়াশিয়া-বাসারচালা-মহানন্দপুর সড়কটি দীর্ঘদিনেও পাকা না হওয়ায় বুধবার সকালে এলাকাবাসী সড়কে ধানের চারা লাগিয়ে এ প্রতিবাদ জানান।

এলাকাবাসী জানান, বর্ষাকাল এলেই কাঁচা এই সড়কে হাঁটু কাদা হয়ে চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এ সড়ক দিয়ে উপজেলার কচুয়া, সাড়াশিয়া, বাসারচালা, মহানন্দপুর, ভন্ডেশ্বর পাড়া, রামখা পাড়া, কামন্না পাড়া, বেপারী পাড়াসহ ৮-১০টি গ্রাম, কচুয়া হাই স্কুল, কচুয়া প্রাইমারি স্কুল, সাড়াশিয়া-বাসারচালা হাই স্কুল, সাড়াশিয়া প্রাইমারি স্কুল, মহানন্দপুর হাই স্কুল, মহানন্দপুর প্রাইমারি স্কুল, সান স্টার বিএম কলেজ ও কিন্ডার গার্টেনসহ ১৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, দুইটি কমিউনিটি ক্লিনিক ও পাঁচটি হাট-বাজারের লোকজন চলাচল করে থাকেন। সড়কজুড়ে থকথকে কাদা থাকায় গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি দীর্ঘদিনেও পাকা না করায় গ্রামবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে ধানের চারা রোপণ করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা বন্দে আলী মিয়া ও নিজাম উদ্দিন বলেন, প্রায় পাঁচ কিলোমিটারের সড়ক বর্ষাকালে একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এক দেড় যুগ ধরে শুনতেছি রাস্তা পাকা হবে। কবে আর হবে জানি না। এ এলাকায় উপজেলার মধ্যে আদা, হলুদ, কচু, বেগুনসহ শাক-সবজি উৎপাদন হয় বেশি। উৎপাদিত পণ্য নিয়ে সড়কে যাতায়াতকালে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হয় কৃষকদের। স্থানীয় কালিয়া ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে বর্ষাকালে সাময়িক চলাচলের জন্য সড়কের বড় গর্তগুলো ভরাটের দাবি জানালেও তিনি কোনো দৃষ্টি দেননি বলে জানান তারা।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা প্রকৌশলী কাজী ফাহাদ কুদ্দুছ জানান, সড়কটি পাকাকরণের জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই টেন্ডারের আওতায় আসবে সড়কটি।

এর আগে ১২ জুলাই জেলার বাসাইল উপজেলার বার্থা-ডুমনীবাড়ি গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি সংস্কারের অভাবে বেহাল অবস্থা হওয়ায় একইভাবে সড়কে ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ জানান এলাকাবাসী।

 

(আরিফ উর রহমান টগর/আরএআর/জেআইএম/ ঘাটাইল.কম)/-

144total visits,1visits today